ওয়েব সিরিজবিনোদন

ওয়েব সিরিজে প্রথম বার পা রাখতে চলেছেন ঋত্বিক, সাথে থাকবেন সকলের প্রিয় রানিমা দিতিপ্রিয়া

কমার্শিয়াল ঝাঁচকচকে সেটে বাংলা ছবির পাশাপাশি আজকাল পাল্লা দিয়ে চলছে আর্ট ফিল্ম, স্বাধীন গল্প। এখন আর কেবল বাংলা ছবি মানেই নাচ, গান, বা হাসি ঠাট্টা নয়৷ বাংলার অন্যধারার ছবিতে অভিনয় করেই জনপ্রিয়তা অর্জন করেন টলিউডের ‘শ্রীকান্ত’ ওরফে ঋত্বিক চক্রবর্তী (Ritwick Chakraborty)।

বাংলা থিয়েটার দিয়েই অভিনয়ে হাতিখড়ি অভিনেতার। তারপর ২০০৮ সালে রুদ্রনীল ঘোষ, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ক্রস কানেকশন সিনেমা দিয়ে বড়পর্দায় আসেন অভিনেতা। নায়ক সুলভ চেহারা বলতে যা বোঝায় অর্থাৎ উঁচু লম্বা, গাল ভর্তি দাঁড়ি, বা মাসল এই সবের কোনোটিই নেই। কিন্তু তবুও তার আসল পরিচয় তার অভিনয়েই।

অনেক দিন ধরেই অভিনেতার অনুরাগীরা অপেক্ষারত ছিলেন তাকে ওয়েব পর্দায় দেখার জন্য। কেননা তিনি বাদে তার সমসাময়িক বা সমগোত্রীয় সমস্ত অভিনেতারা ইতিমধ্যে ওয়েব সিরিজে মুখ দেখিয়ে ফেলেছেন। অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে ওয়েব পর্দায় ডেবিউ করতে চলেছেন ঋত্বিক। সাহানা দত্ত প্রযোজিত ‘গোরা’র শ্যুটিং ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছেন অভিনেতা। আর তারপরেই রোহন ঘোষ পরিচালিত সম্ভাব্য ‘মুক্তি’ নামক সিরিজেও দেখা মিলবে অভিনেতার।

এই প্রসঙ্গে ঋত্বিক জানিয়েছেন, এতদিন পর্যন্ত ভালো চরিত্রের খোঁজ করছিলেন তিনি। গোরা তে তাকে দেখা যাবে এক গোয়েন্দা চরিত্রে যা সম্পূর্ণ অন্যরকম এবং মুক্তিতে ব্রিটিশ জেলারের ভূমিকায় অভিনয় করবেন তিনি।’ মুক্তি’তে ঋত্বিক ছাড়াও অর্জুন চক্রবর্তী, দিতিপ্রিয়া রায় রয়েছেন। অসমবয়সি এক দম্পতিকে দেখানো হবে গল্পে। আর চমক হল ঋত্বিকের বিপরীতে এবার দেখা যাবে রানিমা দিতিপ্রিয়াকে।

এই প্রসঙ্গে দিতিপ্রিয়া জানান, ‘ রোহনের লেখা গল্পটা বেশ ইউনিক। একটা জুটির গল্প যাদের বিয়ে হয় ঘটনা চক্রে। মেয়েটি আধুনিক। ইংরেজি পড়তে চায়, রান্না করতে চায় না। তার স্বামী জেলের কাজকর্ম তাড়াতাড়ি মিটিয়ে বাড়ি ফিরে রান্না করে। ঋত্বিক দার সাথে পর্দা ভাগ করব ভেবেই বেশ উত্তেজিত আমি। ‘

Related Articles

Back to top button