বিনোদন

M.A ইংলিশ চা ওয়ালি! উচ্চ শিক্ষিতা বেকার মেয়ে টুকটুকির পাশে দাঁড়ালেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

ছোটবেলায় একটি লাইন শুনে আমরা বড় হই, “পড়াশোনা করে যে গাড়িঘোড়া চড়ে সে”, কিন্তু হালফিলে এই ভাবনা যেন সোনার পাথরবাটি। পড়াশোনা করলেও যোগ্য ছাত্র-ছাত্রীর জন্য চাকরি কই? রোজ লক্ষ্য লক্ষ্য ছেলেমেয়ারা মাস্টার ডিগ্রি পাশ করেও বাড়িতেই বসে রয়েছে। দিনে দিনে বাড়ছে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা। এই অবস্থায় কোনোও উপায় না দেখে চায়ের দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেন টুকটুকি।

কে এই টুকটুকি? কতটা পড়াশোনা করেছে? কেনই বা তাকে খুলতে হল চায়ের দোকান? এমন হাজারো প্রশ্ন অনেকের মাথাতেই আসছে। তবে প্রশ্নের উত্তর খুবই বাস্তব সম্মত। ২৬ বছরের টুকটুকি ‘MA English Chaiwali’ নামে দোকান খুলে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকবার শিরোনামে এসেছেন।

জানা যাচ্ছে, রবীন্দ্রভারতী মুক্ত বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে ৬১% নম্বর নিয়ে স্নাতকত্তোর পড়াশোনা শেষ করেছে টুকটুকি। পড়াশোনা শেষে একাধিকবার চাকরির পরীক্ষাও দিয়েছে সে। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি! চাকরি তো দূর, জীবন কাটানো দুর্বিসহ হয়ে উঠছে প্রতিদিন। বাবা প্রশান্ত দাস সামান্য মুদিখানার দোকান চালান, এমনকি সংসারের দায়ে মাঝে মধ্যে ভ্যান রিক্সায় চালাতে হয় তাকে। তখন মা দোকান সামলান।

তার এই লড়াইয়ের কথা শুনে চোখ ভিজিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়াবাসী। হুহু করে বাড়ছে তার ইউটিউব চ্যানেলের ভিউজ। এবার টুকটুকির এই লড়াইতে পাশে দাঁড়ালেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। টুকটুকির জন্য গর্ব বোধ করে, তাকে শুভেচ্ছা জানান অভিনেত্রী।

Rituparna Sengupta,ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

ঋতু জানান, টুকটুকি অনেকের কাছেই উদাহরণ হয়ে উঠেছেন। ঋতুপর্ণা মনে করেন, টুকটুকির মধ্যে ব্র্যান্ড তৈরি করার ক্ষমতা রয়েছে। সব কাজের শুরু শূন্য থেকেই হয়। এই শিক্ষার জোরেই টুকটুকির দোকান একদিন ব্র‍্যান্ড হয়ে উঠবে৷ অন্যদিকে স্বপ্নের অভিনেত্রীর থেকে এহেন শুভেচ্ছা পেয়ে খুশি টুকটুকিও। তিনি জানান নিজের দোকান খুললে ঋতুপর্ণাকে অবশ্যই জানাবেন তিনি।

Related Articles

Back to top button