বিনোদনসিনেমা

ঋতাভরী যেন দশভূজা! পুজোর আগে নতুন জামাকাপড় দিয়ে কচিকাচাদের মুখে ফোটালেন হাসি

বর্তমানে টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। বাংলা ইন্ডাস্ট্রির এই সুন্দরী নায়িকা ভালো অভিনয়ের পাশাপাশি আরও একাধিক গুনের অধিকারী। যার মধ্যে অন্যতম হল সমাজসেবা। সল্টলেকের (Salt Lake) ‘আইডিয়াল স্কুল ফর দ্য ডেফ’-র (Ideal School For The Deaf) সঙ্গে ১৬ বছর বয়স থেকেই যুক্ত ঋতাভরী চক্রবর্তী। তাঁর মা শতরূপা সান্যাল (Satarupa Sanyal) এবং তিনি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা চালান।

সেই সূত্রেই এই স্কুলের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘদিনের যোগসূত্র। এই স্কুলের বিশেষভাবে সক্ষম ৭৪ জন শিশু পড়ুয়ার যাবতীয় দায়িত্ব এবং জীবনের সুখ-দুঃখের নানা মুহূর্তের সঙ্গী ঋতাভরী। সারাবছর ধরেই এই স্কুলের বাচ্চাদের সন্তান স্নেহে আগলে রাখেন অভিনেত্রী। তাই লাইব্রেরির ব্যবস্থা হোক কিংবা বড়দিনে সান্তাক্লজ সেজে উপহার দেওয়া,উৎসবের দিনগুলোতে এই সকল শিশুদের মুখে হাসি ফোটানোর কোনো কমতি রাখেন না ঋতাভরী।

Ritabhari Chakraborty ঋতাভরী চক্রবর্তী

আর দুর্গাপুজো মানেই সাজগোজ, খাওয়া দাওয়া আর নতুন জামাকাপড়। তাই পুজোর মুখেই স্কুলের কচিকাচাদের মুখে হাসি ফোটাতে নতুন জামাকাপড় উপহার দিতে পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। পুজোর উপহার তুলে দেওয়ার পাশাপাশি তাদের জন্য খাবার দাবার আর কেক কাটার ব্যাবস্থা করেছিলেন অভিনেত্রী।

বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাক্টিভ থাকেন অভিনেত্রী। জীবনের নানান টুকরো মুহুর্ত তুলে ধরেন সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। এদিন বাচ্চাদের সাথে কাটানো সেই বিশেষ মুহুর্তের ছবিও শেয়ার করেছিলেন অভিনেত্রী। ছবিতে দেখা যাচ্ছে হলুদ পোশাকে ঝলমল করছেন ঋতাভরী। এদিনের এই ওয়ার্কশপের স্পনসর ছিল সুরক্ষা ডায়গনষ্টিক এবং আমিনিয়া রেস্টুরেন্ট। এদিন সকলকেই ধন্যবাদ জানান অভিনেত্রী।

এদিন বাচ্চাদের সাথে কাটানো মুহুর্তের ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে ঋতাভরী লিখেছেন, আজ তাঁর স্কুলের ছোটদের নতুন জামা পরার দিন। সেইসঙ্গে এদিন স্কুলে আয়োজন করা হয়েছিল কবিতা ওয়ার্কশপেরও। সেখানে কচিকাচাদের সাথে কেক কাটতে দেখা যায় অভিনেত্রীকে। তবে করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে সবটাই করেছেন প্রটোকল মেনে।

 

Related Articles

Back to top button