লাইফ স্টাইল

সুন্দর ও উজ্জ্বল মুখশ্রী পেতে চান! রইল ঘরোয়া পদ্ধতিতে ব্ল্যাকহেডস দূর করার সহজ উপায়

সুন্দর মুখশ্রী পেতে সকল মহিলাই চায়। এমনকি পুরুষেরাও নিজেদের ত্বক সুন্দর আর উজ্জ্বল করতে চান। কিন্তু প্রতিদিনের ব্যস্ত জীবনে ত্বকের যত্নের সময় আর হয়ে ওঠে কোথায়! এদিকে দূষণ থেকে শুরু করে নানান কারণে ত্বকের হাল বেহাল হয়ে যাচ্ছে। অনেকেই মুখের হাল ফেরাতে নানান ক্রিম, ফেসওয়াস,স্ক্র্যাব ব্যবহার করেন। কিন্তু সেই সমস্ত প্রোডাক্ট বাজারে কিন্তু গেলেও বেশ ভালোই টান পরে পকেটে।

আসলে মুখের সতেজতা ও ঔজ্বল্ল্য নষ্ট হবার সবচাইতে প্রাথমিক কারণ হল ব্ল্যাকহেডস (Blackheads)। বিশাল সংখ্যক মানুষ এই ব্ল্যাকহেডসের সমস্যায় ভোগেন। এই ব্ল্যাকহেডস সমস্যার সমাধানই আজ নিয়ে হাজির হয়েছি বংট্রেন্ডের পেজে। আজ আপনাদের জানাবো ঘরোয়া পদ্ধতিতে ব্ল্যাকহেডস দূর করার সহজ উপায়।

Blackheads

ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিছু ঘরোয়া জিনিস ব্যবহার করেই স্ক্র্যাব বানিয়ে নেওয়া যায়। যা নিয়মিত ব্যবহারের ফলে ত্বকের ব্ল্যাকহেডের সমস্যা দূর হয়। যার ফলে মুখ আরো উজ্জ্বল পরিষ্কার ও সুন্দর হয়। আসুন দেখে নেওয়া যাক এই উপায় গুলি

মধু (Honey)

honey

মধু হল এমন একটি জিনিস যার অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে। অনেকেই খাবার জন্য মধু ব্যবহার করেন। তবে জানেন কি রূপচর্চাতেও মধু একেবারে জাদুর উপকরণের মত কাজ করে।

  • আপনার যদি ব্লাকহেডের সমস্যা থাকে তাহলে মুখে ভালোভাবে পিউর মধু মাখুন।
  • এরপর ১৫-২০ মিনিট সময় দিন যাতে মধুর প্রলেপটি ভালোভাবে মুখের মধ্যে শুকিয়ে যায়।
  • এরপর উষ্ণ গরম জল দিয়ে মুখ  ধুয়ে ফেলুন। এরফলে আপনার ত্বকের মধ্যে থাকা লোমকূপের মধ্যেকার নোংরা আবর্জনা পরিষ্কার হয়ে যাবে।

হলুদ (Turmeric)

ঘরোয়া টোটকা turmeric হলুদ

প্রতিটি বাড়িতেই রান্নার কাজে হলুদ ব্যবহৃত হয়। তবে শুধুই যে রান্নার মশলা হিসাবে হলুদ ব্যবহার হয় তা কিন্তু নয়। হলুদ কাঁচা হোক, শুকনো হোক বা গুঁড়ো এতে রয়েছে দারুন উপকারী গুণ। আর ব্ল্যাকহেডস এর সমস্যাতেও হলুদ দারুন কার্যকরী।

  • হলুদ রূপচর্চার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আপনার যদি ব্ল্যাকহেডস এর সমস্যা থেকে থাকে তাহলে হলুদগুঁড়ো, চন্দন গুঁড়ো ও অল্পপরিমান দুধ ভালোভাবে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরী করুন।
  • এরপর সেই মিশ্রণ ব্ল্যাকহেডস যেখানে হয়েছে সেখানে ভালোভাবে মাখিয়ে নিন।
  • এরপর ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। তারপর মুখ উষ্ণ গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এইভাবে কিছুদিন করলেই আপনি নিজের ত্বকে পার্থক্য বুঝতে পারবেন।
  • এছাড়াও আপনি হলুদ বাটা ও পুদিনা পাতার রস দিয়ে মিশ্রণ তৈরী করতে পারেন। সেই মিশ্রণও একই পদ্ধতিতে ব্যবহার করতে পারেন। তাহলেও সুফল পাবেন খুব দ্রুত।

Related Articles

Back to top button