গসিপবিনোদন

ভাইজানকে নিয়ে এমন কথা বলার সাহস হয় কী করে! রাতারাতি ‘তেরে নাম’ থেকে বাদ পড়েছিলেন এই পরিচালক

সলমন খান (Salman Khan) অভিনীত ‘তেরে নাম’ (Tere Naam) ছবিটি বলিউডের ইতিহাসের অন্যতম হিট ছবিগুলির মধ্যে একটি। ছবিতে রাধে চরিত্রে ভাইজানের অভিনয় এখনও দর্শকদের মনে গেঁথে রয়েছে। পাশাপাশি সেই ছবিতে ভাইজানের স্পেশ্যাল চুলের ছাঁট তো এখনও ভুলতে পারেননি অনেকে। ছবি মুক্তির পর অনেকে সেই চুলের ছাঁট দিয়েছিলেন।

তবে ‘তেরে নাম’ ছবির কাহিনী দর্শকরা জানলেও, অনেকেই হয়তো জানেন না, এই ছবির পরতে পরতে লুকিয়ে রয়েছে অনেক কাহিনী। যা জানলে অবাক হওয়া ছাড়া দর্শকদের কাছে আর কোনও উপায় থাকবে না। এমনই একটি কাহিনী হল, ভাইজান অভিনীত এই ছবির রাতারাতি পরিচালক বদলের কাহিনী।

Salman Khan in Tere Naam

‘তেরে নাম’ ছবির জন্য যে পরিচালককে প্রথমে বাছা হয়েছিল, শেষ পর্যন্ত কিন্তু তিনি ছবির পরিচালনা করেননি। বরং ২০০৩ সালে মুক্তি প্রাপ্ত এই ছবিটির পরিচালনা করেছিলেন সতীশ কৌশিক (Satish Kaushik)। একবার বাদ পড়া পরিচালক নিজেই জানিয়েছিলেন, তাঁকে কেন রাতারাতি ছবি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল।

আসলে সলমনের ছবির পরিচালনার জন্য প্রথমে বেছে নেওয়া হয়েছিল জনপ্রিয় পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপকে (Anurag Kashyap)। কিন্তু ছবির চিত্রনাট্য দেখার পরই তাঁর মনে হয়েছিল, বলিউড সুপারস্টার রাধে চরিত্রের জন্য সঠিক নির্বাচন নয়। কারণ অভিনেতার সঙ্গে এই চরিত্রের কোনও মিলই নেই। একথা শুনে নাকি প্রথমে কিছুক্ষণ চুপ করে অনুরাগের দিকে কটমট দৃষ্টিতে তাকিয়ে থেকে বাড়ি চলে গিয়েছিলেন সলমন।

Anurag Kashyap

এরপর সেদিন রাতেই অনুরাগকে ফোন করে জানানো হয়, তাঁকে পরের দিনই দেখা করতে হবে। পরের দিন পরিচালক সেখানে যাওয়ার পর জানানো হয়, তাঁকে ছবি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তিনি বাদ দেওয়ার কারণ জানতে চাইলেই তাঁকে পাল্টা প্রশ্ন করা হয়, সলমন খানকে এমন কথা বলার সাহস তাঁর কী করে হয়?

বলিউড সুপারস্টার সলমনকে রাধে চরিত্র নিয়ে এমন কথা বলার আগে তাঁর দু’বার ভাবা উচিত ছিল। আর ঠিক সেই কারণেই, অভিনেতাকে চটিয়ে দেওয়ায় রাতারাতি ছবি থেকে বাদ পড়েছিলেন অনুরাগ। আর ছবির পরিচালনার দায়িত্ব পেয়েছিলেন সতীশ।

Related Articles

Back to top button