মেয়েদের মধ্যেই এই লক্ষণগুলি থাকলে যমজ সন্তান হবার সম্ভাবনা থাকে অনেক বেশি!


নারীদের কাছে রয়েছে এক অসাধারণ ক্ষমতা সেটা হল মাতৃত্ব (Motherhood)। নিজের মধ্যে একটি নতুন প্রাণকে সৃষ্টি করতে পারে নারীরা। একজন নারী থেকে মা হয়ে ওঠার এই যাত্রাপথের যাত্রী হতে চান সকল মহিলারাই। আর সত্যি বলতে কি বিয়ের পর মা হওয়াকে সৌভাগ্য বলেই মনে করেন মহিলারা। মায়ের কোল আলো করে যখন সন্তান আসে তখন সেটাই পৃথিবীর সবচাইতে দামি খুশি হয় তার কাছে। তবে কখনো কখনো মা হবার সময় একাধিক সন্তান অর্থাৎ যমজ সন্তানের (Twin Baby) জন্ম দেন মহিলারা।

একই সাথে জন্ম নেওয়া সন্তানদের যমজ বলার কারণ হল একই রকম দেখতে হয় তাদের। এমনকি তাদের কীর্তি কলাপও প্রায় একই ধরণের হয়। তবে জানেন কি এই যমজ সন্তান হবে কি না তত কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টের উপর নির্ভর করে। যেগুলি জানা থাকলে আপনিও জানতে পারবেন আপনার যমজ সন্তান আসতে চলেছে কি না! তাহলে আর দেরি না করে  চলুন দেখে নেওয়া যাক।

Twin Baby

আসলে মানুষ হল বড়োই কৌতূহলী। তাই যে কোনো ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করতে চায় মানুষ। বিজ্ঞানীদের পরিসংখ্যান বলছে বিগত কয়েক দশকে যমজ সন্তান হওয়া অনেক বেড়ে গিয়েছে। ১৯৮০ থেকে ২০০৯ সল্ পর্যন্ত প্রায় ৭৫ শতাংশের বেশি বেড়েছে যমজ সন্তান হওয়ার হার। সম্প্রতি যমজ সন্তানদের মায়ের ওপর রিসার্চ চালানো হয়েছে ‘জার্নাল অব রিপ্রোডাক্টিভ মেডিসিন’ এর তরফে। আর রিসার্চে পাওয়া গিয়েছে কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য।

গবেষণায় জানা গিয়েছে যমজ সন্তান হবার কিছু বিশেষ কারণ। যার মধ্যে রয়েছে মায়ের উচ্চতা ও শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা। আসলে ইনসুলিন মানবদেহে গ্রোথ ফ্যাক্টর হিসাবে কাজ করে। তাছাড়াও সন্তানদের হাড়ের কোষের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে এই ইনসুলিন। তাই ইনসুলিন নামক প্রোটিনকে মেয়েদের লম্বা হয়ে ওঠা ও যমজ সন্তান হবার কারণ হিসাবে ধরা যেতেই পারে।