বিনোদনসিনেমা

নায়িকারা ছোট জামা পরতে শুরু করলেন! এই কারণেই কেরিয়ার শেষ হয়ে গেল অভিনেতা রঞ্জিতের

অসংখ্য নায়িকাদের ইজ্জত নিয়েছেন অভিনেতা রঞ্জীত বেদী (Ranjeet bedi), বাস্তবে নয় পর্দাতেই। এমনকি বলিউডে ‘রেপ স্পেশালিষ্ট ‘ হিসেবেও পরিচিত ছিলেন অভিনেতা৷ কোনোও ছবিতে ধর্ষণের দৃশ্য থাকলে নাকি নায়িকারাই যোগাযোগ করতে বলতেন রঞ্জিতের সাথে। সেই সময় বলিউডে প্রায় ২০০ টির বেশি ছবিতে ভিলেনের ভূমিকায় অভিনয় করে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন রঞ্জিত।

সম্প্রতি কপিল শর্মার বিখ্যাত রিয়েলিটি শোতে এসে ৮০ ৯০ এর দশকের তার অভিনয় জীবনের নানান কাহিনি তুলে ধরলেন রঞ্জিত। জানান মজার মজার অভিজ্ঞতার কথাও। খলনায়কের চরিত্রে তিনি এতটাই স্বকীয় ছিলেন যে, তার অভিনয় দেখে তেলে বেগুনে জ্বলে উঠতেন দর্শকেরা।

অভিনেতা জানান, পর্দায় রাখি গুলজরের সঙ্গে তাঁর একটি দৃশ্য দেখে রঞ্জিতকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন তার বাবা মা। রাখির চুল টানা, শাড়ি ছিঁড়ে দেওয়ার মতো দৃশ্য দেখে অভিনেতার বাবা মা জানিয়েছিলেন রঞ্জিত পরিবারের নাম খারাপ করছেন। তাও নায়িকারা রঞ্জিতের সঙ্গে কাজ করতেই বেশি স্বচ্ছন্দ ছিলেন।

রঞ্জিতের কথায় সেই সময়ের শিল্পীরা চিত্রনাট্য নিয়ে বিশেষ মাথা ঘামাতেন না। এক লাইনের গল্প শুনেই তারা ছবির প্রস্তাব গ্রহণ করে নিতেন। শাড়ি টেনে খোলায় সিদ্ধহস্ত ছিলেন অভিনেতা। সাক্ষাৎকারেই তিনি মশকরা করে বললেন, ‘‘আমি তাই বলি, যে দিন থেকে নায়িকারা ছোট পোশাক পরা শুরু করলেন, আমার প্রয়োজন পড়ল না। ছোট পোশাক টেনে খুলে ফেলার তো দরকার পড়ত না আর।’’

রঞ্জিত বললেন, ‘‘আমি সব সময়ে আমার সহ-অভিনেত্রীদের অস্বস্তি দূর করার চেষ্টা করতাম। আর তাই আমার নামই হয়ে গেল ‘রেপ স্পেশালিষ্ট’। সেই সময়ে এই গোছের দৃশ্যকে ‘অশ্লীল’ তকমা দেওয়া হত না। নায়ক, নায়িকা, খলনায়ক, মা, বাবা, বোন- সব চরিত্রের গতানুগতিক ধারা ছিল।’’

Related Articles

Back to top button