গসিপবিনোদনসিনেমা

শিক্ষিকার দিকে নোংরা নজর! কম বয়সেই প্রিন্সিপালের কাছে চরম শাস্তি পেয়েছিলেন রণবীর কাপুর

লুকিয়ে শিক্ষিকার পা দেখতেন রণবীর কাপুর (Ranbir Kapoor)! ধরা পড়তেই সবার সামনেই শাস্তি দিয়েছিলেন প্রিন্সিপাল  বর্তমানে বলিউডের অন্যতম হার্টথ্রব রণবীরকে। দেশের অসংখ্য তরুণী তার স্বপ্নে মশগুল। সুযোগ পেলে রণবীরও ফ্লার্ট করেন চুটিয়ে। ডেটিং, লিভ ইন এসবে ছোটো থেকেই সিদ্ধহস্ত কাপুর পরিবারের অন্যতম বংশধর। তার জীবনে এতদিন আসা -যাওয়া লেগেই থাকতো প্রেমিকাদের। সেই তালিকায় রয়েছেন বলিউডের দুই প্রথম সারির নায়িকা দিপীকা পাড়ুকোন এবং ক্যাটরিনা কাইফ।

তবে বর্তমানে রণবীর থিতু হয়েছেন তার লেডি লাভ আলিয়া ভাটের (Alia Bhat) প্রেমে। এমনকি খুব শীঘ্রই তারা বিয়ে করতে চলেছেন। বিটাউনে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে এমন গুঞ্জন। ২০১৭ সাল থেকে একসঙ্গে রয়েছেন রণবীর আলিয়া। পরিচালক আয়ন মুখার্জীর ছবি ব্রহ্মাস্ত্রর সেটেই শুভ সূচনা হয় এই সম্পর্কের। এরপর থেকেই ধীরে ধীরে কাপুর পরিবারের অংশ হয়ে উঠেছেন আলিয়া।

 

লেডি কিলার রণবীরের জীবনে অল্প বয়সেই এসেছিল প্রথম প্রেম। তিনি হলেন রণবীরের থেকে বয়সে অনেক বড় তাঁর স্কুলের ইংরাজি শিক্ষিকা। ছোটবেলায় করা দুষ্টুমির কথা নিজের মুখে ফাঁস করে রণবীর এক অনুষ্ঠানে জানান তিনি যখন দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়তেন তখন শুধুমাত্র তার স্কুলে ইংরেজির শিক্ষিকা স্কার্ট পরে স্কুলে আসতেন। তাই রণবীর ম্যাডামের পা দেখার জন্য টেবিলের তলায় লুকিয়ে থাকতেন।

তবে একদিন ধরা পড়ে গিয়েছিলেন রণবীর। স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁর মা নীতু কাপুরকে (Neetu Kapoor) ডেকে পাঠিয়েছিল। ঘটনা শুনে বেশ লজ্জা পেয়েছিলেন নীতু। রণবীর জানান, সেই শিক্ষিকাকে তিনি আজও সেই আগের মতোই ভালোবাসেন। তাই তিনি যেখানেই থাকুন, এই বলিউড অভিনেতার মনের কথাটা নিশ্চয়ই তিনি জানতে পারবেন।

Ranbir Kapoor রণবীর কাপুর

শুধু তাই নয় ছোটোবেলায় গার্লফ্রেন্ডদের উপহার দিতে দিদি ঋদ্ধিমার (Riddhima Kapoor Sahni) পোশাক চুরি করতেন রণবীর। সম্প্রতি কপিল শর্মার শোয়ে এসে একথা ফাঁস করেছেন ঋদ্ধিমা নিজেই। এদিন তিনি জানান ‘ছুটিতে বাড়ি ফিরে আমি এমনি একদিন জাস্ট বসে ছিলাম। হঠাৎ দেখি রণবীরের এক বান্ধবী বাড়ি এসেছে। লক্ষ্য করলাম আমার যে টপটা আমি খুঁজে পাচ্ছি না সেই টপটার মতোই একটা টপ ওই মেয়েটাও পরে আছে। তখনই বুঝতে পারলাম, নিজের পকেট মানি বাঁচানোর জন্য, আমার নানা জিনিস রণবীর ওর গার্লফ্রেন্ডদের উপহার দিত!’

Related Articles

Back to top button