গসিপবিনোদনসিনেমা

সুপারস্টার রজনীকান্তের জামাই ধনুশ! রাজার হালে থাকেন অভিনেতা, কোটি টাকার বাড়ি যেন রাজপ্রসাদ

বুধবার, অর্থাৎ ২৮ জুলাই, ৩৮ বছরে পা দিয়েছেন দক্ষিণী সুপারস্টার ভেঙ্কটেশ প্রভু কস্তুরী রাজা। তবে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত এই শিল্পীকে গোটা ইন্ডাস্ট্রি ধানুশ (Dhanush) নামেই চেনে। প্রধানত তামিল ছবিতেই চুটিয়ে অভিনয় করলেও একাধিক হিন্দি ছবিতে তাঁর অভিনয় দক্ষতা দাগ কেটেছে মানুষের মনে। তবে শুধু অভিনয় নয়, অভিনয় ছাড়াও প্রযোজনা,এবং পরিচালনাতেও যথেষ্ট নাম করেছেন তিনি। সেইসাথে গীতিকার ও গায়কও তিনি।

বিশেষ করে ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া রোম্যান্টিক সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ‘৩’ ছবিতে তাঁর নিজের গলায় গাওয়া ‘হোয়াই দিস কোলাভেরি ডি’ (Kolavari Di) গানটি তাঁকে দেশজুড়ে তুমুল জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছিল।এই গান সোশ্যাল মিডিয়ায় এতটাই ভাইরাল হয়েছিল যে আন্তর্জাতিক মহলেও তার গান নিয়ে ব্যাপক চর্চা হয়েছিল। ইতিমধ্যেই ৫০টি ছবিতে অভিনয় করে ১৩টি সিমা অ্যাওয়ার্ড, ৯টি বিজয় অ্যাওয়ার্ড, ৭টি দক্ষিণ ফিল্মফেয়ার, ৫টি ভিকাতন অ্যাওয়ার্ড, ৫টি এডিসন, ৪টি জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছেন এই সুপারস্টার।

ধানুশের বাবা কস্তুরী রাজা তামিল ইন্ডাস্ট্রির পরিচিত নাম। ২০০২ সালে তাঁর পরিচালিত ‘থুল্লুভাদো ইয়ামাই’ ছবি অভিনয়ের মাধ্যমেই প্রথম অভিনয় জগতে পা রেখেছিলেন ধানুশ। এরপর একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়ে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছিলেন তিনি। এরপর বলিউডে প্রথম ‘রাঞ্ঝনা’ সিনেমা দিয়ে হাতেখড়ি হয় তাঁর। আগামী ৬ আগস্ট মুক্তি পেতে চলেছে অক্ষয় কুমার, সারা আলি খানের সাথে ধনুশ অভিনীত ছবি ‘অতরঙ্গি রে’।

২০০৪ সালে রজনীকান্তের(Rajinikant)মেয়ে ঐশ্বর্যকে (Aishwariya)বিয়ে করেছিলেন ধানুশ। উল্লেখ্য ঐশ্বর্য- ধানুশের থেকে দু বছরের । ২০০৩-এ কোন্ডেন সিনেমার প্রিমিয়ারে দুজনের আলাপ হয়। আর তার পরের বছরেই বিয়ে করেন তাঁরা। উল্লেখ্য ধানুশ ভগবান শিবের ভক্ত । তাই ছেলের নাম রেখেছেন যাত্রা এবং লিঙ্গ। সূত্রের খবর স্ত্রী ঐশ্বর্য এবং দুই সন্তানের সাথে ধানুশ যে বর্তমানে যে বাড়িটিতে থাকেন সেই বাড়ির মূল্য ১৮ কোটি, ২০১৩ সালে তিনি এই বাড়িটি কিনেছিলেন।

অবশ্য এছাড়াও, চেন্নাইয়ে প্রায় দেড়শ কোটি টাকা দিয়ে আরও একটি বিলাসবহুল বাড়ি তৈরির প্রস্তুতি নিচ্ছেন ধানুশ। এছাড়াও ধানুশের বাড়ির বাইরে যে লন আছে তার চারপাশে অনেকগুলি গাছ রয়েছে, যা তাঁর বাড়ির সৌন্দর্য দ্বিগুণ করে তোলে।ধনুশের বাড়ির বারান্দাটা বেশ বড়ো। সেখানেই তিনি এবং তাঁর স্ত্রী যোগাসন করেন। এছাড়াও তাঁর বাড়ির বারান্দা থেকে সূর্যোদয়ের মনোরম দৃশ্য দেখা যায়। ধানুশের বাড়ির রান্নাঘরও বিলাসবহুল।বিলাসবহুল বাড়ি ছাড়াও, ধানুশ একাধিক বিলাসবহুল গাড়িরও মালিক।

Related Articles

Back to top button