বিনোদন

‘পরাণ ভরা ভালোবাসা সমর্পণ করিলাম’! বিয়েতে নজর কাড়ল রাজকুমার পত্নী পত্রলেখার বাংলা লেখা লেহেঙ্গা

“সে এক রূপকথারই দেশ, ফাগুন সেথায় হয়না কভু শেষ “, হ্যাঁ রাজকুমার রাও (Rajkumar rao) আর বঙ্গতনয়া পত্রলেখা পালের (Patralekha paul) বিয়েটাকে রূপকথা বললেও ভুল হয়না। এই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়া সম্পর্ক আর বিবাহ বিচ্ছেদের যুগে এই রাজকুমার আর রাজকন্যে দীর্ঘ ১১ বছর হাত ছাড়েননি একে অপরের। আর আজ সেই ভালোবাসা পেল পূর্ণতা। দীর্ঘদিনের প্রেমকে শিলমোহর দিয়ে গাঁটছড়া বাঁধলেন পত্র-রাজ জুটি।

গত শনিবার থেকে শুরু হয় তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানের প্রাথমিক পর্ব। দুদিন আগেই চন্ডীগড়ের বিলাসবহুল ‘ওবেরয় সুখবিলাস’ হোটেলে বাগদান সেরেছেন বলিউডের এই লাভ বার্ডস। ইতিমধ্যেই নব দম্পতির বিয়ের ছবিতে চোখ জুড়িয়েছে নেটিজেনদের। প্রেমের মতোই নিখাদ তাদের হাসিতে ধরা পড়েছে ঠিক কতটা খুশি তারা।

আর এই সেলেব দম্পতির বিয়ের ছবি দেখা মাত্রই চোখ আটকেছে নববধূ পত্রলেখার লেহেঙ্গা চোলিতে। যতই চন্ডীগড়ের বিলাসবহুল রিসর্টে বিয়ে হোক, রাজকুমার রাওয়ের মতো বলিউডের তাবড় অভিনেতা যতই বর হোক না কেন, তিনি যে বঙ্গ তনয়া। তাই বিয়ের সাজে বাংলার ছোঁয়া থাকবেনা তা কি হয়?

তাই নিজের স্বপ্ন পূরণের দিনটিতে মনের মতো করেই সেজেছেন পত্রলেখা। সব্যসাচীর ডিজাইন করা লাল লেহেঙ্গাতে অপরূপ দেখিয়েছে রাজকুমারের রাজরানিকে। মজার ব্যাপার পত্রলেখার মতো সব্যসাচীর শিকড়ও বাংলাতেই, তাই দুইয়ে মিলেছেও ভালো। পত্রলেখার বিয়ের বিয়ের ভেল বা ওড়নায় বাংলা হরফে লেখালেন, ‘আমার পরাণ ভরা ভালোবাসা আমি তোমায় সমর্পণ করিলাম।’ পত্রলেখা বাঙালি, তাই নিজের মনের কথা লিখলেন নিজের ভাষায়।

হাতে শাঁখা পলারও মিলেছে দেখা। হালকা জরির কাজ করা লাল লেহেঙ্গা, খোঁপায় ঠাঁসা ফুলে সেজেছেন বঙ্গ তনয়া, অন্যদিকে রাজকুমারের পরনে সাদা শেরওয়ানি। নব দম্পতি নিজেদের বিয়ের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে লিখেছেন আদুরে ক্যাপশন।

এদিন বিয়ের ছবি শেয়ার করে রাজকুমার লিখেছেন ‘এগারো বছরের ভালোবাসা, রোম্যান্স,বন্ধুত্ব এবং আনন্দের পর অবশেষে আমি আজ পত্রলেখাকে বিয়ে করলাম।’ সেইসাথে তিনি লিখেছেন ‘পত্রলেখাই আমার জীবনের সবকিছু,আমার সোলমেট, আমার প্রিয় বন্ধু , আমার পরিবার। ওর হিসাবে হতে পারার থেকে বড় খুশি নেই আমার কাছে।পত্রলেখা চিরকালের জন্য এবং তার থেকেও বেশি।’

Related Articles

Back to top button