খবরবিনোদন

বিজেপি থেকে সিপিএমে অভিনেত্রী রূপা অনিন্দ্য! ক্ষোভে CPIM ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন রাহুল ব্যানার্জি

২০২১ সালের বিধানসভা ভোটের আগে সিপিএমের (CPIM) জন্য জান প্রাণ লড়িয়ে দিয়েছিলেন অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় ব্যানার্জি (Rahul arunoday Banerjee) । বিধানসভায় হেরে শূন্য হয়ে যাওয়ার পরেও নিজের আদর্শ থেকে এক চুলও নড়েননি রাহুল। কিন্তু হঠাৎই তিনি সিদ্ধান্ত নিলেন ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি অর্থাৎ সিপিআইএম ছাড়ার৷ ছাত্রজীবন থেকেই বাম আদর্শে বিশ্বাসী অভিনেতা হঠাৎ আজ সিপিআইএম ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন।

নিজেই তার কারণ ও জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। চরম হুশিয়ারি দিয়ে এদিন সিপিআইএমের রাজ্য নেতৃত্বকে রাহুল সাফ জানান, “আমি কোনো প্রলোভন বা ক্ষমতার কারণে রাজনীতি করি না। আমার রাজনীতি একান্তই আদর্শগত। সিপিএমের মঞ্চে যদি টিকিট না পাওয়া হতাশ বিজেপি জায়গা পায়, তাহলে আমি আজ এই মুহূর্ত থেকে সিপিএমের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করলাম।”

প্রসঙ্গত, আজকেই সিপিএম পরিচালিত যাদবপুরের শ্রমজীবী ক্যান্টিনের ৫০০ দিন পূর্তি উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল বাম নেতৃত্বরা। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টলিপাড়ার পরিচিত একাধিক বাম মুখ সহ রাজ্য সিপিএমের চেয়ারম্যান বিমান বসু, কসবার পরাজিত সিপিএম প্রার্থী শতরূপ ঘোষ, মহম্মদ সেলিম, বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য সহ তাবড় তাবড় বাম নেতৃত্বরা।

এদিন অনুষ্ঠানের আগে একটি মিছিলও সংগঠিত হয়েছিল, সেই মিছিলেই হাঁটতে দেখা যায় পূর্বে বিজেপির কট্টোর সমর্থক হিসেবে পরিচিত অভিনেতা অনিন্দ্য পুলক ব্যানার্জি এবং রূপা ভট্টাচার্য। তাদেরকে সিপিএমের কর্মসূচীতে দেখেই ক্ষুব্ধ অভিনেতা রাহুল ব্যানার্জি।

ঘটনার বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি স্পষ্ট আরও জানান, , “আমার বামপন্থা সিপিএম দলের মুখাপেক্ষী নয়। যে একবারের জন্যও সাম্প্রদায়িক দলের সঙ্গে জড়িয়েছে, বিশেষত সে যদি সেলিব্রিটি হয়, তার সঙ্গে কোনও দিন এক মঞ্চে আমি থাকব না। এবার সিপিএম দল ভেবে দেখুক আমাদের প্রয়োজন, না তাদের?” রাহুলের এই বিস্ফোরক পোস্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

Related Articles

Back to top button