খবরবিনোদনসিনেমা

তিন বছরেই মিটে গেল বিয়ের সাধ! তুঙ্গে ‘দেশি গার্ল’ প্রিয়াঙ্কা নিকের বিবাহ বিচ্ছেদের জল্পনা

শীতকাল পড়তে বলিউডে বিয়ের মরশুম চালু হয়ে গিয়েছে। একেরপর এক তারকাদের বিয়ের খবর আসছে। কিন্তু এই বিয়ের মরসুমেই বিচ্ছেদের খবর মিলেছে বিটাউনে। স্বামীর সাথে তিন বছর সংসার করেই আলাদা হচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (Priyanka Chopra) ও নিক জোনাস (Nick Jonas)! এমনটাই জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিটাউনে। অভিনেত্রীর একটি ছোট্ট ইঙ্গিতেই সূত্রপাত হয়েছে এই জল্পনার।

২০১৮ সালে প্রেমিক তথা বিখ্যাত মার্কিন পপ গায়ক নিক জোনাসকে বিয়ে করেন প্রিয়াঙ্কা। বিয়ের পর স্বামীর সাথে ঘর করতে মার্কিন মুলুকেও পারি দিয়েছেন তিনি। বিয়ের আগে প্রিয়াঙ্কা বলতেন যে নিজের নামের সাথে স্বামীর নাম জুড়বেন না তিনি, মানে নামের শেষে স্বামীর পদবি জুড়বেন না। যদিও সেটার উল্টোটাই দেখা গিয়েছিল বিয়ে হবার পর। নিজের নামের শেষে স্বামীর পদবি জোনাস যোগ করেছিলেন অভিনেত্রী।

Priyanka Chopra প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

কিন্তু হটাৎই নামের থেকে জোনাস মুছে দিলেন প্রিয়াঙ্কা। সোমবার অভিনেত্রীর অফিসিয়াল সোশ্যাল মিডিয়াতে নাম প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস থেকে শুধু প্রিয়াঙ্কা চোপড়া হয়ে গিয়েছে। কোনো একটি মাধ্যমে নয় ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম এমনকি টুইটার সর্বত্রই এখন শুধুই প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনেত্রী। এমন কান্ড দেখেই দুজনের মধ্যেকার সম্পর্ক ভাঙতে চলেছে এই সন্দেহে ছড়িয়ে পড়েছে বিচ্ছেদের খবর।

এমনিতে সোশ্যাল মিডিয়াতে মাঝে মধ্যেই নিকের সাথে ছবি শেয়ার করে থাকেন প্রিয়াঙ্কা। কখনো খুনসুটির মুহূর্ত তো কখনো হাসি মুখে ছবি বা ভিডিও শহরে করেন। কিন্তু হটাৎ কেন এভাবে স্বামীর পদবি সরিয়ে ফেললেন অভিনেত্রী? এর উত্তর জানা যায়নি। তবে যেমনটা জানা যাচ্ছে প্রিয়াঙ্কা ও নিকের বিবাহ বিচ্ছেদ হচ্ছে না। হয়তো বিয়ের আগে দেওয়া কথা অনুযায়ী শুধুই প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নাম পরিচিত হতে চান অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, প্রিয়াঙ্কার স্বামী নিকের থেকে বয়সে অনেকটাই বড়। দুজনের বিয়ের পর এই নিয়ে বিস্তর সমালোচনা চলেছিল। এরপর ব্যহুবার প্রিয়াঙ্কার সাথে তাঁর শশুড়বাড়ির লোকের সম্পর্ক শিরোনামে আসতে দেখা গিয়েছে। তবে তাদের সম্পর্ক যে ভালোই সেটা বহুবার ছবিতে স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি জল্পনা শুরু হওয়ায় নেটিজেনদের অনেকে এমনও মন্তব্য করছেন যে বিদেশ থাকার জন্যই নিককে বিয়ে করেছিল প্রিয়াঙ্কা।

Related Articles

Back to top button