রেসিপি

পয়লা বৈশাখে বানিয়ে ফেলুন রুই মাছের মাথা দিয়ে মুড়িঘন্ট! জিভে জল আনা পদের রেসিপি রইল

বাঙালির অন্যতম জনপ্রিয় খাবার হল মুড়িঘন্ট। স্বাদে গন্ধে অতুলনীয় এই পদ পাতে পড়লেই এক থালা ভাত এমনিই খাওয়া হয়ে যায়। সামনেই পয়লা বৈশাখ, অর্থাৎ বাংলার নববর্ষ। তালে আর দেরী কেন বাঙালির এই খুশির দিনে লাঞ্চেই বানিয়ে ফেলুন রুই মাছের মাথা দিয়ে মুড়ি ঘন্ট।

মুড়িঘন্ট বানাতে লাগবে:

১ টা রুই মাছের মাথা,
গোবিন্দ ভোগ চাল ১/২ কাপ,
১ টা বড়ো পেঁয়াজ কুঁচি,
১ টা বড়ো টম্যাটো কুঁচি,
১ টা আলু ছোট টুকরো টুকরো করে নিতে হবে, আদা- রুসুন বাটা ১ চামচ,
জিরে বাটা ১/২ চামচ,
লঙ্কা গুঁড়ো ১/২ চামচ,
হলুদ গুঁড়ো ১/২ চামচ,
কিছু কাজু- কিশমিশ,
নুন পরিমাণ মতো,
ঘি ১ চামচ,
সরষের তেল ১ টেবিল চামচ,
চিনি সামান্য,
গোল মরিচ গুঁড়ো ১ চামচ এর ৪ ভাগের ১ ভাগ, গরম মশলা গুঁড়ো -জায়ফল গুঁড়ো আর রোস্টেড ধনে গুঁড়ো সব মিলিয়ে আছে প্রায় ১ চামচ এর চার ভাগের ১ ভাগ,
তেজপাতা ১ টা,
এলাচ ৩ টি,
লবঙ্গ ৪ টি আর লাগছে দারচিনি ১ টা।

মুড়িঘন্ট বানানোর পদ্ধতি :

প্রথমে মাছের মাথাতে নুন আর হলুদ মাখিয়ে নিতে হবে। তারপর গোবিন্দ ভোগ চাল ধুয়ে জল ঝড়িয়ে নিতে হবে।

এরপর কড়া গরম করে ঘি দিতে হবে। ঘি গলে গেলে দিয়ে দিতে হবে জল ঝাড়ান গোবিন্দ ভোগ চাল। চাল অল্প ভেজে তুলে নিতে হবে।

এরপর কড়াতে তেল দিতে হবে। গরম তেলে আলু দিতে হবে। আলু ভাজা হলে সামান্য হলুদ দিয়ে অল্প একটু নাড়াচাড়া করে তুলে নিতে হবে। ওই তেলেই দিয়ে দিতে হবে মাছের মাথা। মাছের মাথা উল্টে পাল্টে লাল করে ভাজতে হবে। মাছের মাথা ভাজা হলে নরম হয়ে যায়, আর যেহেতু ঘণ্ট বানানো হবে তাই মাথা ভেঙে দিতে হবে। এতে করে মাছের মাথা ভালোভাবে ভাজা হয়।

মাছের মাথা ভাজা হলে তুলে নিতে হবে।
এরপর ওই তেলেই দিতে হবে তেজপাতা, এলাচ, লবঙ্গ আর তেজপাতা। এলাচ ফাটিয়ে তবেই গরম তেলে দেবেন।

এবার দিতে হবে পেঁয়াজ কুঁচি।পেঁয়াজ ভালোভাবে ভাজা হলে ওর মধ্যে এক এক করে দিয়ে দিতে হবে কাজু- কিশমিশ, জিরে বাটা, আদা-রুসুন বাটা, হলুদ- লঙ্কা গুঁড়ো, গোল মরিচ গুঁড়ো আর চিনি।
সব মশলা তেলে ভেজে নিতে হবে।

এরপর দিতে হবে টম্যাটো কুঁচি আর নুন। এসময় নুন দিলে টম্যাটো তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হয়ে যায়।
টম্যাটো সেদ্ধ হলে একটু বেশি করে জল দিতে হবে। ওর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ভাজা আলু, চাল আর ভাজা মাছের মাথা।

এরপর এটা ঢাকা দিয়ে হতে দিতে হবে ১৫ মিনিট। মাঝে দু’বার ঢাকা খুলে নাড়াচাড়া করে আবার ঢাকা দিতে হবে।১৫ মিনিট পর দেখে নিন আলু সেদ্ধ হয়েছে কিনা।

নামানোর আগে দিতে হবে ঘি, রোস্টেড ধনে গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো আর জায়ফল গুঁড়ো। মিশিয়ে নিলেই তৈরি মুড়ি ঘণ্ট।

Related Articles

Back to top button