রেসিপি

শুভদিনের খাবারের পাতে অবশই চাই! রইল ভাইফোঁটা স্পেশাল পায়েস তৈরির রেসিপি

বাঙালির খাবারের প্রতি ভালোবাসাটা সেই শুরু থেকেই। আর বাঙালিদের বারো মাসে তেরোপার্বণ থেকে শুরু করে জন্মদিন, অন্নপ্রাশন ভাইফোঁটার মত শুভ অনুষ্ঠান রয়েছে। যে কোনো শুভ কাজ যেমন মিষ্টিমুখ ছাড়া সম্পন্ন হয় না তেমনি এই শুভ দিনগুলিতে খাবারের তালিকায় পায়েস থাকবেই থাকবে। ইতিমধ্যেই দুর্গাপুজো আর কালীপুজো শেষ হয়েছে, এবার ভাইফোঁটার পালা। আজ আপনাদের জন্য ভাইফোঁটা স্পেশাল পায়েস তৈরির রেসিপি (Payesh Recipe) নিয়ে হাজির হয়েছি।

ভাইফোঁটায় দাদা ও ভিড়ের মিষ্টির সাথে পায়েস দেন অনেকেই। আর বাড়িতেই দুর্দান্ত স্বাদের পায়েস তৈরী করে নেওয়া যায়  সহজেই। চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে গোবিন্দভোগ চাল দিয়ে যেমন সুস্বাদু তেমনি সুগন্ধিত পায়েস তৈরী করে। আর রেসিপি দেখে ঝটপট তৈরী করে ফেলুন ভাইফোঁটা স্পেশাল পায়েস (Payesh)।

ভাইফোঁটা স্পেশাল পায়েস তৈরির জন্য  প্রয়োজনীয় উপকরণঃ 

  • গোবিন্দভোগ চাল
  • দুধ, ঘি
  • চিনি, মিছরি টুকরো, গুঁড়ো দুধ
  • কাজুবাদাম, কিশমিশ, ছোট এলাচ গুঁড়ো
  • তেজপাতা, আর পরিমাণ মত নুন

ভাইফোঁটা স্পেশাল পায়েস তৈরির পদ্ধতিঃ 

  • প্রথমে গোবিন্দভোগ চাল ভালো করে ধুয়ে ৪৫-৬০ মিনিট জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে। শেষে জল ঝরিয়ে নিতে হবে।
  • এরপর কড়ায় ঘি দিয়ে কাজুবাদাম, কিশমিশ আর তেজপাতা দিয়ে হালকা করে ভেজেই তুলে আদা করে রাখতে হবে।

  • এবার কড়ায় গোবিন্দভোগ চাল দিয়ে হালকা করে ভেজে  তুলে রাখতে হবে।
  • কড়ায় থাকা ঘি এর মধ্যেই দুধ দিয়ে গরম হওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে হবে, গরম হলে তাতে সামান্য  গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে নাড়তে নাড়তে ফোটাতে থাকতে হবে।

  • দুধ গাঢ় হয়ে এলে তাতে ভেজে রাখা চাল দিয়ে সামান্য পরিমাণে নুন দিয়ে দিতে হবে।
  • এবার আধসেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত দুধ চাল নাড়তে থাকতে হবে, শেষে ভেজে রাখা কাজু, কিশমিশ, তেজপাতা ও প্রয়োজনমত মিষ্টি (চিনি ও মিছরির টুকরো ) দিয়ে দিতে হবে।

  • এরপর কম আঁচে পায়েস গাঢ় হওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকতে হবে, গর্ হয়ে এলে এলাচগুঁড়ো ওপর থেকে ছড়িয়ে দিতে হবে।

  • ব্যাস শুভদিনের পায়েস এক্কেবারে রেডি এবার শুধু সাজিয়ে পরিবেশনের অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button