খবরভাইরাল

দেবদূতের ন্যায় এক ব্যক্তির প্রাণ বাঁচালো ছোট্ট টিয়া, প্রশংসা গোটা নেটদুনিয়ায়

মানুষের শ্রেষ্ঠ বন্ধু কুকুর(Dog), একথা শুনেছেন সকলেই। অনেক সময় অনেকেই তার নির্দশনও পেয়েছেন। তবে সাধারণত সকল পশুই প্রভুভক্ত হয়। প্রভুর জন্য কুকুর বেড়াল হোক বা যে কোনো পশুই হোক প্রাণের ঝুকি নিতে দ্বিধা বোধ করে না।  এমনই এক নিদর্শনের কথা শোনা গেল আবার।

আসলে পশু পাখিদের সচেতনতা মানুষের থেকে কয়েকগুন বেশি হয়। মানুষের কিছু আঁচ করার আগেই তারা ঘটনাগুলির আগাম পূর্বাভাস পেয়ে যায়। ফলে প্রভুকে সতর্ক করার চেষ্টা করতে থাকে। এবার এমন এক কাণ্ডের কথা বলবো শুনে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন। এক ছোট্ট টিয়ার (Parrot) জেরে অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন এক ব্যক্তি। কিভাবে? আসলে অস্ট্রেলিয়ার এক ব্যক্তির বাড়িতে আগুন লাগে। তখন মহিলা ঘুমাচ্ছিলেন। কিন্তু আগুনের পোড়া গন্ধ নাকে যেতেই প্রভুর নাম ধরে চিৎকার শুরু করে টিয়া পাখিটি। তাতেই অল্পের জেরে বেঁচে যান ওই ব্যক্তি।

ঘটনাটি ঘটেছে শুরুর অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড নামক এক জায়গায়। সেখানে অ্যান্টন নেগুয়েন নামক ব্যক্তির পোষ্য এরিক নামক এক টিয়া পাখি। গত বুধবার অ্যান্টনের বাড়িতে আগুন লাগে। যখন আগুন লাগে তখন গভীর নিদ্রায় নিদ্রাচ্ছন্ন ছিলেন অ্যান্টন।  কিন্তু আগুনের পোড়া গন্ধ পেয়ে যায় এরিক নামক টিয়াটি। এরপরেই তীব্র চিৎকার করে ঘুম ভাঙ্গায় মালিকের।

প্রথমে কি  জন্য এরিক চেঁচামেচি করছে তা বুঝতে না পারলেও।কিছুক্ষনের মধ্যেই অ্যান্টন বুঝতে পারেন বাড়িতে আগুন লেগেছে। এরপর অ্যান্টন দমকলে খবর দেয়। দমকল যতক্ষনে আসে ততক্ষনে বাড়ির বেশ খানিকটা ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। তবে সে যাত্রায় প্রাণে বেঁচে গেছেন অ্যান্টন। যার একমাত্র কারণ হল এরিক নামক টিয়া পাখি। ঘটনার খবর সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে। সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়লে নেটিজেনরা এরিক অর্থাৎ টিয়া পাখিটির প্রশংসার ঝড় তুলেছে নেটদুনিয়ায়।

Related Articles

Back to top button