বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

স্বামী ভক্ত নাগিনী পঞ্চমী, সাপ হয়েও রয়েছে সিঁথির সিঁদুর, কান্ড দেখে হাসি চাপা দায় নেটিজেনদের

সাপও সিঁদুর পরে! স্বামী ভক্ত সাপ পঞ্চমীর মাথায় সিঁদুর দেখে হেসে খুন দর্শকরা

গত কয়েকমাসের মধ্যে বাংলা বিনোদনমূলক চ্যানেলগুলিতে একাধিক নতুন সিরিয়াল (Bengali Mega Serial) শুরু হয়েছে। এমনই একটি ধারাবাহিক হল ‘পঞ্চমী’ (Panchami)। নাগ-নাগিনীদের কাহিনী নিয়ে শুরু হয়েছে এই অতি অলৌকিক ঘরানার ধারাবাহিক। মুখ্য চরিত্রে দেখা যাচ্ছে, জনপ্রিয় টেলি অভিনেত্রী সুস্মিতা দে এবং অভিনেতা রাজদীপ গুপ্তকে।

‘পঞ্চমী’র নিয়মিত দর্শকরা জানেন, নায়িকা পঞ্চমী একজন ইচ্ছাধারী নাগিনী। ধারাবাহিকের শুরুতেই দেখানো হয়েছে, পঞ্চমীর মা’ও ছিলেন একজন ইচ্ছাধারী নাগিনী। কিন্তু তাঁকে কেউ খুন করে দেয়। তবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার আগে সে নিজের মেয়েকে জন্ম দিয়ে এবং পুরোহিত এবং তাঁর স্ত্রীয়ের কাছে রেখে যায়।

Panchami serial

সেই পুরোহিত এবং তাঁর স্ত্রী’ই পঞ্চমীকে মানুষ করেছে। তাই পঞ্চমী একেবারেই নিজের আসল পরিচয় সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল নয়। সে যে একজন ইচ্ছাধারী নাগিনী তা জানে না। তবে ধারাবাহিকের সাম্প্রতিক পর্বে প্রকাশ পেয়েছে তাঁর আসল পরিচয়।

Panchami becoming snake

স্টার জলসার এই ধারাবাহিকের সাম্প্রতিক একটি পর্বে দেখানো হয়েছে, পূর্ণিমার আলো পঞ্চমীর গায়ে পড়তেই তাঁর নাগিনীরূপ বেরিয়ে আসে। মানুষের রূপ ছেড়ে সে একটি সাদা রঙের নাগিনীতে পরিণত হয়। এত অবধি সব ঠিক ছিল। কিন্তু নাগিনীতে পরিণত হওয়ার পরই একটি দৃশ্য দেখে নেটপাড়ায় শুরু হয়েছে হাসাহাসি।

Panchami snake wearing sindoor

আসলে পঞ্চমী এখন বিবাহিত। সে এখন কিঞ্জলের স্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই পঞ্চমীর সিঁথিতে সিঁদুরও থাকে। কিন্তু তাই বলে সাপে পরিণত হয়ে যাওয়ার পরও পঞ্চমী সিঁদুর পরবে! শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই দেখানো হয়েছে সিরিয়ালে।

সম্প্রতি একজন নেটিজেন সাপরূপী পঞ্চমীর মাথায় সিঁদুরের ছবি শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। আসলে পঞ্চমী যে সাদা রঙের সাপে পরিণত হয়েছে, সেটির মাথায় রয়েছে একটি লাল রঙের চিহ্ন। আর সাপকে সিঁদুর পরতে দেখে স্বাভাবিকভাবেই হাসাহাসি শুরু হয়েছে নেটপাড়ায়। একজন নেটিজেন হিন্দির ‘নাগিন’এর সঙ্গে তুলনা টেনে লিখেছেন, ‘প্রথা মাঝে এতটাই স্বামীভক্ত হয়ে গিয়েছিল যে নাগিন আউটফিটের সঙ্গে মঙ্গলসূত্র পরতো। আর পঞ্চমী তো আবার পুরো হয়ে গিয়েও সিঁদুর পরে বসে আছে’।

Related Articles

Back to top button