বিনোদন

হলফনামা বলছে উচ্চমাধ্যমিক পাশ, লোকসভার সাইট বলছে গ্র‍্যাজুয়েট! নুসরত ‘কেলেঙ্কারি’তে নয়া দৃষ্টান্ত

গতকাল থেকেই সংবাদের শিরোনামে বারংবার উঠে আসছে একটাই নাম নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) । তার ব্যক্তিগত জীবন এবং বৈবাহিক সম্পর্ক নিয়ে বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছেনা তার। এদিন নুসরত বিবৃতি দিয়ে জানান, “নিখিলের সাথে তিনি কেবল সহবাস করেছেন, তাদের কোনোরকম বিয়েই হয়নি”।

অথচ তার এই বিবৃতির পরেই উঠে এসেছে একাধিক নথি, যেখানে লোকসভার সাইটেও তার নামের পাশে স্পষ্ট লেখা অভিনেত্রী বিবাহিত। স্বামীর নাম নিখিল জৈন। বিয়ের তারিখ ১৯ জুন ২০১৯। এমনকি, লোকসভায় শপথ নেওয়ার দিনও নুসরত নিজের নাম বলেছিলেন, ‘আমি নুসরত জাহান রুহি জৈন’। যা লোকসভা টিভিতে সম্প্রচারিত হয়। ‘ এই তথ্য সামনে আসার পর নেটিজেনদের অনেকেরই বক্তব্য লোকসভায় দাঁড়িয়ে শপথ নেওয়ার সময় এত বড় মিথ্যে তবে বললেন কীভাবে নুসরত।

এবার প্রশ্ন উঠছে নুসরতের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়েও। ২০১৯-র লোকসভা নির্বাচনে লড়াই করার সময় নিয়ম মেনে নির্বাচন কমিশনের কাছে হলফনামা জমা দিয়েছিলেন নুসরত জাহান। আর তাতে লেখা ছিল তিনি উচ্চমাধ্যমিক পাশ। কিন্তু বসিরহাট কেন্দ্র থেকে জেতার পরেই রাতারাতি বেড়ে গেল তার শিক্ষাগত যোগ্যতা।

২০০৮ সালে ভবানীপুর গুজরাটি এডুকেশনাল সোসাইটি থেকে তিনি উচ্চ মাধ্যমিক পাশ পাশ করেছেন। অথচ, লোকসভার ওয়েবসাইটের তথ্য বলছে অন্যকথা। সেখানে রয়েছে, নুসরত বি.কম অনার্স। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া জল্পনা।

Related Articles

Back to top button