খবরগসিপবিনোদনসিনেমা

নায়িকা থেকে রোমান্স কিছুই নেই, আদৌ লোকে দেখবে সালমান খানের ‘অন্তিম’ ছবি! চিন্তায় খোদ পরিচালক

গতবছর করোনার কারণে বলিউডে একগুচ্ছ ছবির রিলিজ ও কাজ আটকে গিয়েছিল। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবার সাথে সাথে  সেগুলি রিলিজ হচ্ছে একে একে। আর সামনেই মুক্তি পেতে চলেছে বলিউডের ভাইজান সালমান খান (Salman Khan) অভিনীত পরবর্তী ছবি ‘অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ (Antim : The Final Truth)’ যার জন্য অনেকেই অপেক্ষায় রয়েছেন।

আর পাঁচটা কমার্শিয়াল সিনেমার থেকে এই ছবিটি অনেকটাই আলাদা। কেন এমন বলা হচ্ছে? কারণ হল সাধারণত বলিউডে ছবিতে অ্যাকশন, রোমান্স, ড্রামা ও কমেডি সবই দেখা যায়। আর সিনেমা মানেই তাতে থাকবে হিরো আর হিরোইন। কিন্তু ভাইজানের  অন্তিম ছবিতে নেই কোনো নায়িকা। তাই রোমান্স যে বাদ পড়েছে সেটা নিঃসন্দেহে বলা যেতেই পারে।

আর এখানেই হয়েছে মুশকিল! সালমান খানের ছবি মানেই জমিয়ে অ্যাকশনের সাথে নাচ গান আর প্রেমের টুইস্ট শুরু থেকেই দেখে অভ্যস্ত দর্শকেরা। সেখানে নায়িকা ছাড়া গান ছাড়া কি গোটা একটা ফিল্ম কি আদৌ দর্শকদের মন জয় করতে পারবে? এই প্রশ্নই এখন চিন্তায় ফেলে দিয়েছে ছবির প্রযোজক মহেশ মঞ্জেরেকরেরকে। যদিও শুরুতে এমনটা হাল এমনটা কথা ছিল না।

প্রযোজকের মতে, ছবির শুরুতে নাচ গানের কথা হয়েছিল। এমনকি ছবির জন্য নাচের শুটিংও হয়েছিল। কিন্তু ছবি তৈরী হবার পর সালমান নিজেই নাচের দৃশ্য বাদ দিয়ে দেবার জন্য বলেন। এর পিছনে ভাইজানের যুক্তি ছিল এই যে. ‘নাচগুলির একটিতেও আমাকে মানাবে না। তাই কোনো দরকার নেই ছবিতে নাচের দৃশ্য ঢোকানোর’। সালমান খানের এমন সিদ্ধান্তে অবাক হয়ে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন প্রযোজক।

প্রযোজকের টিমে, সালমান খানের ছবি মানেই তো একটা দুর্দান্ত নাচ আর নায়িকার সাথে রোমান্স। অথচ সালমান সেসবের কিছুই রাখতে চাইছেন না ছবিতে। এতে আদতে ছবিরই ক্ষতি হবে। যদিও এব্যাপারে ভাইজান জানিয়েছেন, তার সম্পূর্ণ ভরসা রয়েছে  ছবিটির প্রতি। আগামী ২৬শে নভেম্বর হতে চলেছে ‘অন্তিম: দ্য ফাইনাল ট্রুথ’, এখন  ছবিটি কতটা দর্শকদের মনে দাগ কাটতে পারে সেটাই দেখার অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button