বিনোদন

বারবার বলেছিলাম বিয়ের রেজিস্ট্রেশনের জন্য, ও করতে চায়নি! নুসরতের পাল্টা বিবৃতি দিলেন নিখিল জৈন

দীর্ঘদিন ধরে আসা বিতর্কে কাল আরও ঘি ঢেলেছেন অভিনেত্রী নুসরত জাহান (Nusrat jahan) । গতকাল তার করা মন্তব্য ঘিরে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া৷ নুসরত গত কালকেই বিবৃতি জারি করে জানিয়েছেন, “নিখিলের (Nikhil Jain) সাথে তিনি কেবল সহবাস করেছেন, তাদের কোনোরকম বিয়েই হয়নি”। এছাড়াও নিখিলের বিরুদ্ধে একেরপর এক গুরুতর অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী সাংসদ।

নুসরতের দাবি, তুরস্কে গিয়ে তারা যে পদ্ধতিতে বিয়ে সেরেছিলেন সেটা ছিল অবৈধ। ভারতীয় নিয়ম বা হিন্দু-মুসলিম ধর্মের সামাজিক নিয়ম কোনোটাই মেনে হয়নি এই বিয়ে। যদি নিয়ম মেনে বিয়েই না হয়ে থাকে তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদের কথা আসছে কোথা থেকে? নিখিলের বিরুদ্ধে অভিনেত্রীর অভিযোগ, তার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়েছেন নিখিল। এছাড়াও নুসরতের গয়না, পোশাক, ব্যাগ আটকে রেখেছেন নিখিলের পরিবার।

এবার মুখ খুললেন নিখিল জৈন। নুসরতের পালটা বিবৃতি প্রকাশ করে নিখিল জানান, ‘বিয়ে নিয়ে আমার পরিবার এবং আমাকে যে দোষারোপ করা হচ্ছে, তার সত্যতা প্রকাশ করতেই এই বিবৃতি।’
এই বিবৃতিতে নুসরতের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন নিখিল।

১. নিখিল জানান, নুসরতের প্রেমে পড়ে তাকে প্রপোজ করেছিলেন তিনি। অভিনেত্রী সেই প্রস্তাব খুশি মনে গ্রহণ করেন এবং তারপরেই বিদেশে গিয়ে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তারা। রিসেপশন হয় কলকাতায়। তারপর থেকে স্বামী স্ত্রীর মতোই দাম্পত্য জীবন কাটিয়েছেন তারা।

২. নিখিলের অভিযোগ, ২০২০ সালের আগস্ট মাস থেকে তার প্রতি নুসরতের ব্যবহার বদলাতে শুরু করে। যদিও কেন সেই উত্তর নুসরতই দিতে পারবেন।

৩. একাধিকবার নুসরতকে বিয়ের রেজিস্ট্রেসনের জন্য বললেও অভিনেত্রী এড়িয়ে গিয়েছেন এমনটাই জানান নিখিল।

৪. নিখিলের প্রতি আনা সমস্ত অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবী করে তিনি আরও বলেন- “২০২০ সালের ৫ নভেম্বর ও আমাকে ছেড়ে চলে যায়। সঙ্গে নিয়ে যায় ওর ব্যবহৃত সমস্ত মূল্যবান জিনিসপত্র, কাগজ এবং গুরুত্বপূর্ণ নথি। ও বালিগঞ্জের ফ্ল্যাটে থাকতে শুরু করে। তার পরে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে আমরা আর কোনও দিন একসঙ্গে থাকিনি।”

৫. নিখিল জানান নুসরতের থেকে কেবল একটি হোমলোনের জন্য টাকা নেওয়া হত, যার সমস্ত প্রমাণ তার কাছে রয়েছে। তিনি জানান, “আমার ব্যাঙ্ক এবং ক্রেডিট কার্ডের বিবৃতি এই সত্যকে সমর্থন করার জন্য যথেষ্ট। আমার পরিবার নিজের মেয়ে ভেবে নুসরতকে দু’হাত বাড়িয়ে গ্রহণ করেছিল। আমরা কেউই বুঝতে পারিনি এই দিন আমাদের দেখতে হবে।”

Related Articles

Back to top button