নেপোটিজমের জেরে দুর্দশা স্টারকিড অনন্যা-ঈশানের ছবির, লঞ্চ এরপরেই সুপার ফ্লপ “খালিপিলি “


টলিউডে মুক্তি পেতে না পেতেই সুপার ফ্লপ ঈশান  খট্টর ও অনন‍্যা পাণ্ডের নতুন ছবি “খালি পিলি”।বিগত ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তীতে OTT প্লাটফর্মে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। মুক্তির পরেই শুরু হয় ডিসলাইক ও বাজে কমেন্টের ঝড়। এর আগে ছবির টিজার মুক্তি পে ইউটিউবে সেখানেও একই দশা হয়েছিল। ছবি মুক্তি পাবার পরেও সেই একই ধারা অব্যাহত রইল।

মুভি রেটিং সাইট IMDb তে খুবই কম রেটিং পেয়েছে ছবিটি,সাথে রয়েছে কমেন্টস। ১০ এ মাত্র ১.৮ রেটিং হয়েছে ঈশান অনন্যার “খালিপিলি”। সাথে কমেন্টে রয়েছে জঘন্য অভিনয়,বিরক্তিকর গল্প,গানের কোনো মানেই হয়না,খারাপ গান এর মত কমেন্টস। একেই প্রখ্যাত অভিনেতা সুশান্তের মৃত্যুর পরে নেপোটিজম নিয়ে  উত্তাল সারা দেশ,সেখানে ঈশান ও অনন্যা দুজনেই ষ্টারকিড। এমনিতেই নেপোটিসমের খাঁড়া ঝুলছিল উপরন্তু ছবির স্টোরিলাইন ও ঈশান অনন্যার অভিনয় দর্শকদের মন জয় করতে ব্যর্থ হয়।

প্রসঙ্গত,এর আগে সুশান্ত সিং এর মৃত্যুর পর থেকেই বলিউডের নেপোটিজমের নিন্দা শুরু হয় চারিদিকে।যার জেরে মুকেশ ভাট কন্যা আলিয়া ভাটের ছবি “সড়ক – ২” ছবিটি প্রকাশ্যে এলে তাতে ডিসলোকের বন্যা বয়ে যায়। যেন নেটিজেনরা নেপোটিসমের বিদুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। দেখতে দেখতে “সড়ক – ২” ইউটিউবে মোস্ট ডিসলাইকড ভিডিও এর মধ্যে দ্বিতীয়  নম্বরে চলে যায়। সুতরাং ষ্টারকিডদের জন্য সময় খানিকটা হলেও খারাপ চলছে।

এমন সময় “খালিপিলি” ছবিতেও স্টোরিলাইন তাগড়া না হওয়ায় ও ষ্টারকিড হওয়ায় নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়ে সুপার ফ্লপ “খালিপিলি”। এই ছবিতে ঈশানকে একজন ড্রাইভারের লুকে দেখানো হয়েছে, যে কিনা একজনকে খুন করে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।অন্যদিকে অনন্যা ডাকাতি করে পালাচ্ছে, পুলিশের হাত থেকে কিভাবে রক্ষা পাবে সেই পথ খুঁজছে। শেষমেশ তারা আদৌ কি পারবে পালিয়ে বাঁচতে এই নিয়েই ছবির গল্প।


Like it? Share with your friends!

666
666 points