গানবিনোদন

গায়ক হয়েও বাবা চাইতেন না মেয়ে গান গাক! নিজের চেষ্টাতেই গায়িকা সে, রইল নচিকেতার মেয়ের পরিচয়

বাংলা সঙ্গীত জগতের এক কিংবদন্তী গায়ক হলেন নচিকেতা চক্রবর্তী (Nachiketa Chakraborty) । তাঁর লেখা মৌলিক জীবনমুখী গান শুনলে গায়ে কাঁটা দেয় শ্রোতাদের। গত কয়েক দশক ধরেই সঙ্গীত জগতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন গায়ক। তবে নচিকেতা চক্রবর্তীর মেয়ে ধানসিঁড়ি চক্রবর্তীর (Dhansiri chakraborty) গানের ক্ষেত্রে কোনো সাহায্য করেননি নচিকেতা। নিজের জন্মদিনে তাই একাই সাহস দেখিয়ে ফেললেন নচি কন্যা৷

গত রবিবার মুক্তি পেয়েছে ধানসিঁড়ির নতুন গান ‘তুমি ছাড়া’। এছাড়াও পুজোর আগে মুক্তি পাবে ইন্দ্রজিৎ দের কম্পোজিশন, পৃথ্বীশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায় ধানসিঁড়ি চক্রবর্তীর প্রথম গানের সিঙ্গলস ‘দুনিয়া ডিজিটাল’। ছোট বেলা থেকেই তার বাড়ির আনাচেকানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েচগে সুর৷ গানের মধ্যেই বড় হয়ে উঠেছে নচি কন্যা৷ গান তার রক্তে৷

এর আগে পর্যন্ত বাবার সঙ্গেই বিভিন্ন মঞ্চে গান গেয়েছেন তিনি৷ তবে তাঁর গানের জগতে স্বতন্ত্রভাবে প্রথম পথ চলা শুরু। বাবা নচিকেতা তাকে কতটা সাহায্য করেছেন জানতে চাইলে সংবাদ মাধ্যমের কাছে তিনি জবাব দেন, “বাবা খুব ভাল লিসনার। বাবাকে শোনান হয়েছিল গানটা। বলেছিলেন, ‘এটা তোর ব্যাপার। কীভাবে গাইবি, তুই ঠিক করবি’। কোনও টিপস দেননি বাবা। আমাকে আমার মতো করে গাইতে বলেছিলেন।”

এই প্রসঙ্গে নচিকেতাও সাফ জানান, তিনি চেয়েছিলেন তাঁর মেয়ের গানে যেন কোনোভাবেই তাঁর না কোনো প্রভাব পড়ে। তাই মেয়েকে বাবা বলেছিল, ‘তুই তোর মতো করে কর।’ ইতিমধ্যেই ‘মহানায়িকা’, ‘অলীক সুখ’-এর মতো ছবিতে গান গেয়েছেন ধানসিঁড়ি। কিন্তু এই মুহূর্তে ছবির গানের বাইরের সঙ্গীতকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন নচিকেতা-কন্যা। বর্তমানে ইতিহাসে স্নাতকোত্তর পড়ছেন ধানসিঁড়ি। পাশাপাশি একটি সংবাদ মাধ্যমে কাজ ও করেন তিনি। তিনি যে আগামীতে সঙ্গীত জগতের একজন প্রতিভাবান রত্ন হতে চলেছেন তা এখন থেকেই টের পাওয়া যাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button