আমার মোটা হওয়া যেন জাতীয় সমস্যা হয়ে উঠেছে! ফুঁসে উঠলেন বিদ্যা বালন


দ্য ডার্টি পিকচার (The Dirty Picture) থেকে শকুন্তলা দেবী (Shakuntala Devi) হোক বা তুমহারি সুলু (Tumhari Sulu), প্রত্যেক বলিউডি (Bollywood) ছবিতেই চুটিয়ে কাজ করেছেন বিদ্যা বালন (Vidya Balan)। রোগা হওয়ার কারণে বারংবার বডি-শেমিংয়ের (Body-shaming) শিকার হয়েছেন অভিনেত্রী অনন্যা পান্ডে (Ananya Pandey), সে বিষয়ে সম্প্রতি মুখ খুলেছেন তিনি। একইভাবে তাঁর মোটা দেহের কারণে যেভাবে জনসাধারণের আকর্ষণের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন তিনি, তাতে বিদ্যার মুখ খোলাটা ছিল শুধুই সময়ের অপেক্ষা।

বিদ্যা বালন Vidya Balan

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমের একটি সাক্ষাৎকারে বিদ্যা স্পষ্ট জানিয়েছেন, “চলচ্চিত্রজগতের সঙ্গে যুক্ত নয়, এমন একটি পরিবার থেকে এসেছি আমি। সেসময়ে সব ঠিক হয়ে যাবে বলার মত কেউ ছিল না। এদিকে আমার ওজনের সমস্যা একটি জাতীয় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়ে আমার বক্তব্য একটাই, আমি সবসময়ই বেশ স্বাস্থ্যবান। তবে এখন আমি যে পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে, তাতে ওজন আমাকে খুব একটা প্রভাবিত করে না।” পাশাপাশি হরমোনের সমস্যার জন্য তাঁকে যেরকম সমস্যায় পড়তে হয়েছে, তাতে মাঝেমধ্যেই যে মানসিকভাবে ভেঙে পড়তেন তিনি, তাও জানান বিদ্যা।

বিদ্যা বালন Vidya Balan

বক্তব্যের দিক থেকে অনন্যার মত একইপথে হেঁটেছেন বিদ্যা। শরীর যে শুধুমাত্রই রক্ত-মাংসের সমাহার এবং শরীরকে স্বাভাবিকভাবে মেনে নিলেই যে জীবনে উন্নতি করা সম্ভব, তাও নিজ কথার মাধ্যমে স্পষ্ট করেন বিদ্যা। সূত্রের খবর অনুযায়ী, যে শরীরের জন্য তিনি বেঁচে আছেন, সেই শরীরকে যেকোনোভাবে অস্বীকার করতে নারাজ বিদ্যা।

বিদ্যা বালন Vidya Balan

‘কাহানি’ (Kahaani) ছবিতে অভিনয়ের দরুণ রুপোলি পর্দায় বেশ প্রভাবশালী মুখ হিসেবে উঠে আসেন বিদ্যা। শরীরের বিষয়ে সাক্ষাৎকারে বিদ্যা জানান, “চুলের দৈর্ঘ্য হোক বা পেশির মেদবাহুল্যতা, মানুযাহ হিসেবে আপনি উন্নত হলে এসবের কোনটাই দরকারি নয়। নিজেকে ভালোবাসতে পারলে কোনো খুঁতই চোখে পড়ে না। লোকেদের কথা শুনে যদি নিজেকে বিচার করতে যান তাহলেই সমস্যা বাড়বে।” লোকমুখের সমালোচনা শুনে মেয়েরাই যে নিজেদের বাহ্যিক আবরণকে বেশি বিচার করে থাকে, সে বিষয়েও অকপটে জানান বিদ্যা।


Like it? Share with your friends!

609
609 points