গসিপবিনোদনসিনেমা

১৭ বছর বয়সেই শাম্মী কাপুরকে বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে ছিলেন মুমতাজ! শেষ বয়সে আফসোস অভিনেত্রীর

ভারতের হিন্দি সিনেমা জগতের ইতিহাসে সত্তরের দশকের অন্যতম সেরা জুটি শাম্মী কাপুর (Shammi Kapoor)এবং মুমতাজ। (Mumtaz) একটা সময়ে বিটাউনে তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে শুরু হয়েছিল জোর গুঞ্জন। কিন্তু সেসময় মুখে কার্যত কুলুপ এঁটেছিলে এই জুটি। প্রসঙ্গত সিনেমাপ্রেমীদের কাছে আজও রয়েছে মুমতাজ এবং শাম্মী কাপুরের ‘আজকাল তেরে মেরে পেয়ার কে চর্চে’ গানটির ব্যাপক ক্রেজ।

সেসময় সিলভার স্ক্রিনে সুপার ডুপার হিট ছিল মুমতাজ শাম্মী জুটি। তবে শোনা যায় ততদিনে পর্দায় প্রেম গড়িয়েছে বাস্তবে। তাই তখন টিনসেল টাউনে তাদের দুজনের অনস্ক্রিন জুটি নিয়ে শুরু হয় জোর গুঞ্জন। ওই একটি গান দিয়েই তাদের জুটি দর্শকদের কাছে দারুন জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। মাত্র ১৬ বছর বয়স থেকেই মুমতাজ রাতারাতি সকলের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়ে উঠেছিলেন।

সময়ের সাথে দেশজোড়া নাম, যশ, খ্যাতির সাথে আকাশছোঁয়া স্টারউড সব মিলিয়ে তরতরিয়ে বাড়ছিল যুবতী মুমতাজের কেরিয়ারগ্রাফ। অন্যদিকে পর্দার পিছনেও মুমতাজের সাথে জমে ওঠে অভিনেতা শম্মী কাপুরের প্রেম। এইভাবে দীর্ঘদিন ধরে একে অপরের সাথে সম্পর্কেও ছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে শাম্মী কাপুর মুমতাজকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে, মুখের ওপর তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।

প্রসঙ্গত যে সময়ের কথা হচ্ছে সেসময় সারা দেশে মেয়েরা শম্মী কাপুরের অন্ধ ভক্ত ছিলেন। ততাই স্বাভাবিকভাবেই শম্মী কাপুরের মতো একজন সুপারস্টারকে মুমতাজ কেন ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তা জানতে সকলেই আগ্রহী। কারণ প্রসঙ্গে একবার এক সাক্ষাৎকারে এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রী নিজেই বলেছিলেন “আমার বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর এবং শাম্মী কাপুর ছিলেন আমার থেকে ১৮ বছরের বড়।”


অভিনেত্রীর কথায় এত কম বয়সে বিয়ের মত সিদ্ধান্ত নেওয়া তার পক্ষে কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কারণ তার আগে মুমতাজ নিজের কেরিয়ার গুছিয়ে নিজের পায়ে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন। তবে নিজের মুখেই অভিনেত্রী একথা স্বীকার করে বলেছিলেন ‘আমি শাম্মী কাপুরকে ভীষণ ভালবাসতাম। উনিও আমায় অনেক ভালোবাসা দিয়েছিলেন। কিন্তু বিয়ের কথা উঠলে, আমি প্রত্যাখ্যান করেছিলাম, যদিও পরে আমার আফসোস হয়েছে, শাম্মী কাপুরকে বিয়ে না করে।’ সেইসাথে অভিনেত্রীর সংযোজন ‘আমি যদি সেই সময় শাম্মী কাপুরকে বিয়ে করতাম, তাহলে সেই বিয়ে বেশিদিন টিকত না। তাছাড়া, আমি অভিনয় করতে চেয়েছিলাম। আর কাপুর পরিবার তাদের পুত্রবধূদের বিয়ের পর সিনেমায় কাজ করতে দেয় না।’

Related Articles

Back to top button