খবরগসিপবিনোদন

এটা নোংরা না হলে কাল পর্ন বানাবে! শাহরুখ-দীপিকার ‘বেশরম রঙ’ নিয়ে বিস্ফোরক মুকেশ খান্না

এসব দেখলে তরুণ প্রজন্ম ভুল পথে চালিত হবে। কিভাবে এসব সেন্সর বোর্ডের নজর এড়িয়ে যায়?

দীর্ঘ ৪ বছর পর বলিউডের খারাপ সময়ে কামব্যাক করছেন ইন্ডাস্ট্রির বাদশাহ শাহরুখ খান (Shahrukh Khan)। ভক্তদের আশা বক্স অফিস কাঁপিয়ে সুপারহিট হবে ‘পাঠান’ (Pathaan)। কিন্তু মুশকিল হল রিলিজের আগেই শাহরুখ দীপিকার ‘বেশরম রঙ’ (Besharam Rang) গান নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। রিলিজ হওয়ার পরেই সমালোচনার ঝড় উঠেছিল পোশাক ও বিকিনির রং নিয়ে। এবার সেই বিতর্কের আগুনে ঘি ঢেলে বিস্ফোরক মুকেশ খান্না (Mukesh Khanna)।

আগেই গানে দীপিকার পোশাক নিয়ে একাধিক ব্যক্তিত্ত্বরা মন্তব্য করেছেন। খোদ মুকেশ খান্নাও আগে একবার সুর ছড়িয়েছিলেন বড় পর্দায় এই ধরণের নোংরামি দেখানো নিয়ে। এবার দ্বিতীয়বার ‘বেশরম রঙ’ গান নিয়ে তীব্র কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন শক্তিমান অভিনেতা।

Mukesh Khanna reacts to Pathaan Movie Shahrukh Khan Deepika Padukone Besharam Rang song

প্রথমে মুকেশ খান্না বলেন, ‘নামমাত্র পোশাকে ক্যামেরার সামনে আসার সাহস দেখাচ্ছে এখন। এরপর তো নগ্ন করেই আনবে!’ এই মন্তব্যকে সমর্থন করেছিলেন অনেকেই। তবে এখানেই থামেননি তিনি। এবার আরও একটিও পোস্ট করে অভিনেতা লেখেন, ‘এটা যদি আপনাদের অশ্লীল না মনে হয় তাহলে কাল আপনারা পর্ন বানাবেন’।

গানের একটি অংশের ছবি শেয়ার করে মুকেশ লিখেছেন, ‘গেরুয়া রঙের বিকিনি পরে নায়িকাকে নাচানো হচ্ছে। শুধু তাই নয় জুম করে সবাইকে দেখানো হচ্ছে গেরুয়া রঙের বিকিনি। এতটা অভদ্র আর অশ্লীল! এর ওপর বার বার বেশরম রং বলে অপমান করা হচ্ছে!’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Mukesh Khanna (@iammukeshkhanna)

অভিনেতার এই পোস্ট নেটপাড়ায় ভাইরাল হয় ঠিকই। কিন্তু নেটিজেনদের অনেকেই একমত হননি তাঁর সাথে। অনেকেই বিরূপ মন্তব্য করেছেন পোস্ট দেখে। একজনের মতে, আপনার মতিভ্রম হয়েছে। তো আরেকজন লিখেছেন, একটা গানে নাচের জন্য কেউ পর্নস্টার হয়ে যায় না। এমনকি একজন এও লেখেন, কাল আপনার বোন, মেয়েরা নাচলে শর্টস পড়লে তাকেও এসব বলবেন নাকি!

বোঝাই যাচ্ছে রিলিজ দিন যত এগোচ্ছে ততই বাড়ছে বিতর্ক। ইতিমধ্যেই ‘পাঠান’ বিতর্কের জেরে সেন্সরবোর্ডকেও একহাত নিয়েছেন মুকেশ খান্না। তাঁর মতে, সেন্সর বর্ডার কাজ হল এটা নিশ্চিত করা যে কারোর বিশ্বাস বা অনুভূতিতে যেন কোনো প্রকার আঘাত না লাগে। সেখানে এই ধরণের ছবিকে ছাড় দেওয়া হলে আগামী প্রজন্ম ভুল পথে চালিত হবে। এই ধরণের উত্তেজক পোশাক কিভাবে সেন্সর বোর্ডের নজর এড়িয়ে যেতে পারে!

Related Articles

Back to top button