গসিপবিনোদনসিনেমা

দেশের এই ৫ টি বিলাসবহুল ফাইভ স্টার হোটেলের মালিক মিঠুন চক্রবর্তী! দেখুন হোটেলের দারুণ সব ছবি

বলিউড ফিল্ম জগতের অন্যতম পরিচিত এবং বিখ্যাত অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) আজ রাজনীতির জগতে নিজের নাম তৈরি করেছেন। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, তার মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৪ কোটি ডলার, যা ভারতীয় কারেন্সিতে আড়াইশো কোটি টাকার বেশি!

বাস্তব জীবনের কথা বললে, মিঠুন চক্রবর্তী আজ বিলাসবহুল জীবনযাপন করছেন। কিন্তু এই প্রথম দিকের দিনগুলোর কথা যদি বলি তাহলে মিঠুন চক্রবর্তী দারিদ্র্যের মধ্যে দিন কাটিয়েছেন। তবে আজ বলিউডের ধনী অভিনেতাদের তালিকায় তার নামও রয়েছে। মিঠুন চক্রবর্তী তার আয়ের বেশির ভাগই আয় করেন তার বিলাসবহুল হোটেল থেকে।

মিঠুন চক্রবর্তীর জন্য, তিনি মোনার্ক গ্রুপ অফ হোটেলের মালিক এবং আজ তিনি উটি এবং মোনার্ক সাফারি পার্ক মাসিনাগুড়িতে মোট দুটি পাঁচ তারকা বিলাসবহুল হোটেলের মালিক। তামিলনাড়ুর উটিতে মিঠুন চক্রবর্তীর হোটেলটি একটি খুব সুন্দর স্থানে রয়েছে আর Bong Trend – এর পর্দায় এই হোটেলের কিছু ছবি দেখাব। মিঠুন চক্রবর্তীর এই ফাইভ স্টার (5 Star Hotel) হোটেলটি ভিতর থেকে বাহির পর্যন্ত অত্যন্ত বিলাসবহুল, চারিদিকে সবুজের নৈসর্গিক দৃশ্য এবং এই হোটেলটিকে সাদা ও লালের সংমিশ্রণে রাঙানো হয়েছে।

মিঠুন চক্রবর্তীর এই হোটেলের অভ্যন্তরের কথা বলতে গেলে, ভিতরের দিক থেকে এটি অনেক জমকালো এবং বিলাসবহুল, একাধিক সুযোগ-সুবিধা সহ। হোটেলটিতে প্রচুর প্রিমিয়াম রুম এবং চারটি বিলাসবহুল সজ্জিত স্যুট রয়েছে। হোটেলটিতে একটি বিলাসবহুল সুইমিং পুল এবং একটি ইনডোর প্লে জোন, একটি মিডনাইট কাউবয় বার এবং একটি ডিস্কো সহ একটি মাল্টিকুইজিন রেস্তোরাঁর মতো সুবিধা রয়েছে৷ হোটেল থেকে বের হওয়ার পথে একটি বড় বাগান এলাকা তৈরি করা হয়েছে এবং এই হোটেলে একটি হেলিপ্যাডও তৈরি করা হয়েছে। আর এই হোটেলকে ঘিরে তৈরি করা হয়েছে হাঁটার জায়গাও।

মিঠুন চক্রবর্তীর এই হোটেলটিকে অত্যন্ত বিলাসবহুলভাবে সাজানো হয়েছে, যা ভিতর থেকে এটিকে বেশ রাজকীয় চেহারা দেয়। এছাড়াও এই হোটেলের ভিতরে সুন্দর লাইট লাগানো আছে, যা এই হোটেলের সৌন্দর্যকে ভিতর থেকে বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়।

সূত্রের খবর, মিঠুন চক্রবর্তী তার একটি চলচ্চিত্রের সাথে উটিতে গিয়েছিলেন, যেখানে মিঠুন চক্রবর্তীও এর সৌন্দর্য দেখে উটির প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু সেই সময় মিঠুন চক্রবর্তীকে তার ক্যারিয়ারের কারণে মুম্বাইতে থাকতে হয়েছিল, যার কারণে মিঠুনের পক্ষে বাইরে থাকা সম্ভব হয়নি, তবে তিনি সেখানে তার হোটেল ব্যবসা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন। মিঠুন চক্রবর্তীকে প্রায়ই উটির এই বিলাসবহুল হোটেলে ছুটিতে পরিবারের সঙ্গে দেখা যায়।

Related Articles

Back to top button