বিনোদনসিরিয়াল

বলিউডের ভাইজানকেই আদর্শ মানেন মিঠাই সিরিয়ালের রুদ্র, অজানা তথ্য শেয়ার করলেন ফাহিম মির্জা

বাংলার সিরিয়াল প্রেমী দর্শকদের কাছে জি বাংলার ‘মিঠাই’ (Mithai) সিরিয়ালের জনপ্রিয়তা নিয়ে নতুন করে কিছুই বলার নেই। তবে শুধু মিঠাই নয় গোটা মোদক পরিবারের হাসিখুশি, মিষ্টিপ্রেমী,যৌথ বাঙালি পরিবারের ঐতিহ্যই হল এই সিরিয়ালের অন্যতম প্রধান ইউএসপি। এই সিরিয়ালের আইপিএস অফিসার রুদ্র অভিনেতা ফাহিম মির্জা (Fahim Mirza) দর্শকমহলে দারুন জনপ্রিয়।

নিজের অভিনয় দক্ষতার গুণে মাত্র অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই দর্শকদের একেবারে কাছের মানুষ হয়ে উঠেছেন অভিনেতা। বিপুল জনপ্রিয়তার জেরে দিনে দিনে বেড়ে চলেছে তার ফ্যান ফলোয়িং। সেইসাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে অভিনেতার মহিলা অনুরাগীদের সংখ্যা। প্রসঙ্গত ফাহিম মিঠাই সিরিয়ালের আগে ইতিপূর্বে একাধিক ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন।

তবে তার জীবনে মিঠাই’ই একমাত্র সিরিয়াল, যে সিরিয়ালের হাত ধরে প্রথমবার একজন আইপিএস অফিসার ভূমিকায় অভিনয় করে দারুন প্রশংসা পেয়েছেন অভিনেতা। দিনের পর দিন এইভাবে দর্শকদের ভালোবাসা পেয়ে এককথায় আপ্লুত ফাহিম। তবে এই আশাতীত সাফল্য পেয়ে বরাবরই দর্শকদের ধন্যবাদ জানিয়ে এসেছেন অভিনেতা। প্রসঙ্গত বর্তমানে সিরিয়ালে রুডি বয় চরিত্রটা চুটিয়ে উপভোগ করছেন ফাহিম।

এমনিতে মিঠাই সিরিয়ালের যারা নিয়মিত দর্শক তারা সকলেই জানেন এখন রুদ্রদাও নিপার প্রেমে রীতিমতো হাবুডুবু খাচ্ছে। নিপার স্বপ্নকে সত্যি করে তাকে নিজে থেকে বিয়ে করতে রাজি হয়ে গিয়েছে রুদ্র। তাই এই ধারাবাহিকে তার চরিত্রটা একাধারে যেমন একজন দায়ীত্বশীল,কর্তব্য পরায়ণ পুলিশ অফিসারের তেমনই মাঝে মধ্যেই তার চরিত্রে ধরা পড়ে দারুন সেন্স অফ হিউমার। প্রসঙ্গত ফাহিম করুণাময়ী রাণী রাশমণি সিরিয়ালে রাজা রাম মোহন রায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এছাড়াও তিনি অভিনয় করেছেন জলনুপুর, প্রেমের কাহিনী,রাশি এবং নেতাজি সিরিয়ালে। তবে


পর্দায় প্রথমবার পুলিশের ভূমিকায় অভিনয় করার অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করতে গিয়ে ফাহিম বলেছেন, “আমি একজন আইপিএস অফিসার হিসাবে প্রথমবার অভিনয় করছি, তাই এই চরিত্রের জন্য আমি পুলিশদের ওপরে তৈরি অনেক সিনেমা এবং ভিডিও দেখে নিজেকে প্রস্তুত করেছিলাম। একজন পুলিশ অফিসারের আচরণ,বব্যক্তিত্ব সবটাই অনুসরণ করেছি।আমি আমার ফিটনেস নিয়েও কাজ করেছি। এছাড়া রুদ্র চরিত্রটির একটি কমিক অ্যাঙ্গেলও রয়েছে, তাই এই চরিত্রের জন্য আমার অনুপ্রেরণা হলেন দাবাং এর সালমান খান। আর এখন এই চরিত্রের জন্য দর্শকদের কাছ থেকে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পেয়ে আমি আপ্লুত।”

Related Articles

Back to top button