বিনোদন

সঞ্চালনা অভিনয় ছেড়ে যাদু দেখাচ্ছেন মীর! রাতারাতি ভোল বদলে ফেললেন অভিনেতা

সকালের চায়ের মতোই কলকাতাবাসীর কাছে একটা অভ্যেস সকাল ম্যান মীর (Mir afsar ali)। তার দরাজ কন্ঠেই যেন ঘুম ভাঙে শহর কলকাতার। রেডিও বাদ দিয়েও মীরের বেজায় জনপ্রিয়তা টেলিভিশনেও। তিনি যেমন একাধারে দারুণ সঞ্চালক, তেমন স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান আবার একজন অভিনেতাও তিনি। সব চরিত্রেই সাবলীল তিনি। তার বুদ্ধিমত্তা, নিদারুণ হাস্যরস সবই মুগ্ধ করে তার দর্শকদের।

শুধু তাই নয় একজন মিমিক আর্টিস্ট হিসেবেও যথেষ্ট প্রসিদ্ধ তিনি। কখনো ঋতুপর্ণ ঘোষ, কখনো বুম্বা দা, কখনো বা যাদু সম্রাট পিসি সরকারকে অবিকল নকল করে দেখান তিনি। এবার জুনিয়র পিসি সরকারের জন্মদিনে নিজেকে তার আদলে সাজিয়ে দর্শকদের চমকে দিয়েছেন মীর। প্রথমে দর্শকরা চিনতেই পারেনি মীরকে।

মাথায় রঙিন পাগড়ি, তাতে গোঁজা পালক, পরনে ভারী জোব্বা, হাতে আঙটি, সেই গোঁফের কাটিং সব মিলিয়ে মীরকে চেনা দায়। নিজের এই ছবি শেয়ার করে অভিনেতা লিখেছেন, ‘শুভ জন্মদিন লেজেন্ড, আজকের গো এজ ইউ লাইকে আমি ‘আপনি’ সেজেছি’।

আসলে মীরের মতো প্রতিভার জুরি মেলা ভার। দীর্ঘ ২৭ বছর ধরে রেডিও মির্চি সমৃদ্ধ হয়ে আসছে তার গলায়। বাংলা ভাষার এহেন দখল হাতে গোনা বাঙালিদের মধ্যেই দেখা যায়। শুধু মাত্র কলকাতাতেই নয় দেশের গন্ডি পেরিয়ে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অসংখ্য বাঙালিরাও রয়েছেন তাঁর সেই লক্ষ-লক্ষ গুণমুগ্ধ শ্রোতাদের তালিকায়।

দিন কয়েক আগেই রেডিও দুনিয়ায় তার ২৭ বছর পূর্ণ হল। কাজের প্রথম দিককার একটি ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছিলেন, রেডিওঅ্যাকটিভ (Radioactive) ফর ২৭ ইয়ার্স। এখানে নিজের রেডিও জীবন বোঝাতেই রেডিওঅ্যাকটিভ শব্দটিকে অত্যন্ত বুদ্ধিমত্তার সাথে ব্যাবহার করেছেন মীর। আর পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে আসা মাত্রই সেলিব্রেটি থেকে সাধারণ মানুষ , বয়ে গেছে অসংখ্য মানুষের শুভেচ্ছাবার্তার বন্যা।

Related Articles

Back to top button