খবরবিনোদনসিনেমা

সাপে কেটেছে ভাইজানকে এতেই ফিরবে ভাগ্য! এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসবে সালমান খান, ভবিষ‍্যৎ বাণী মীরের

আজ বলিউডের  ভাইজান সালমান খানের (Salman Khan) জন্মদিন। তবে জন্মদিনের আগেই সমস্ত সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে উঠে এসেছেন অভিনেতা। ৫৬ তম জন্মদিনের আগেই ঘটেছে অঘটন।  সাপে কামড়েছে সালমান খানকে। আর সাপের কামড় খেয়ে হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয়েছিল অভিনেতাকে। তবে এসবের মাঝে নতুন খবর বেরিয়ে এসেছে সালমান খানের বিয়ের। বাংলার জনপ্রিয় কৌতুকাভিনেতা মীর আফসার আলি (Mir Afsar Ali) ভবিষ্যৎ বাণী করেছেন সালমান খানের বিয়ে নিয়ে।

বলিউডের মোস্ট এলিজিবল ব্যাচেলরের তালিকায় সবার আগেই আসবে সালমান খানের নাম। তবুও ৫৬তে পা দিয়েও অফিসিয়ালি সিঙ্গেল ভাইজান। মাঝে একাধিক অভিনেত্রীর সাথে প্রেমের গুঞ্জন শোনা গেছে ঠিকই, তবে কোনোটাই বিয়ের মণ্ডপ পর্যন্ত পৌঁছাতে পারেনি। এবার সেই ব্যাচেলার সালমানের জন্মদিনে বিয়ে নিয়েই ভবিষ্যৎবাণী করলেন মীর।

অনেকেই ভাবছেন ব্যাপারটা কি! হটাৎ মীর কেন সালমান খানের বিয়ে নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করতে যাবে! এই প্রশ্নের উত্তর কিন্তু খানিকটা লুকিয়ে আছে প্রশ্নের মধ্যেই। সকলেই মীরকে কৌতুক অভিনেতা হিসাবে চেনেন। তাই বোঝাই যাচ্ছে আসলে নয় বরং মজার চলেই এমন মন্তব্য করেছেন  তিনি।

আসলে এদিন সালমান খানকে সাপে কামড়ানোর খবর পাওয়ার পর মীর নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘এই বার ফাইনালি ভাইজানের বিয়ে হবে! শুনেছি ‘সাপে’ বড় হয়!’  অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে বাকি সুযোগের মত এমন একটা মজা করার সুযোগ ছাড়েননি মীর। তাই বাংলার প্রবাদ নিয়েই মজার চলে ভবিষ্যৎ বাণী করেছেন তিনি।

তবে মীরের এই পোস্ট কিন্তু মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। মীরের ফ্যান ফলোইং তো আর কম নয়! তারাও পোস্টে রসিকতার সুযোগ ছাড়েনি। কারোর মতে, ‘সাপটার কোনো খবর? শুনেছি বীষ হীন সাপ! ভাইজানের কিছু হবে না, ভয় নেই !’ তো আরেকজন লিখেছেন, সাপটা বেঁচে আছে তো! এমন অজস্র কমেন্টে ভরে গিয়েছে পোস্টার কমেন্ট বক্স।

প্রসঙ্গত, তিনবার সাপে কামড়ালেও সুস্থ আছেন সালমান খান। সাপে কামড়ানোর পরেই দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাকে। এরপর প্রাথমিক চিকিৎসা করেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাকে। ক্যামেরার সামনে দেখাও দিয়েছেন ভাইজান। হাসিমুখ নিয়েই বেরিয়ে এসে জানিয়েছেন, ‘তিনবার সাপে কামড়ানোর পর এমন হাসি দেওয়াটা কঠিন’।

Related Articles

Back to top button