নটরাজের ট্যাটু হাতে উরু উরু শাড়ির আঁচল, মিমির রেড হট ছবি দেখে ধুকপুকানি বাড়ছে নেটিজেনদের


বাংলা চলচ্চিত্র জগতে একজন প্রথম সারির জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের তালিকায় প্রথম দিকেই রয়েছে মিমি চক্রবর্তীর (Mimi Chakraborty) নাম। অভিনয়ের দক্ষতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছুই নেই। স্টাইল বলুন বা গ্ল্যামার সবেতেই নজর কাড়তে সিদ্ধহস্তা এই টলি তারকা। গানের ওপারে সিরিয়ালে ‘পুপে’ চরিত্রে তাঁর অভিনয় নজর কাড়ে সবার। বর্তমানে অভিনেত্রীর পাশাপাশি তিনি একজন সাংসদ ও বটে। অভিনয় জগতের কাজের সাথে বিধানসভা ভোটের কাজ উভয়ই সামলাচ্ছেন অভিনেত্রী।

mimi chakraborty

টলিউড জগতে পা রাখার আগে তিনি একজন মডেল ছিলেন। তাঁর প্রথম অভিনয়ের যাত্রা শুরু হয় চ্যাম্পিয়ন ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে। তবে, সেখানে তাঁকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়। এরপর ২০১২ সালে ‘বাপি বাড়ি যা’ সিনেমায় তাঁকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়। আর তারপর থেকেই একের পর এক সিনেমা দিয়ে মন জয় করে নেন দর্শকদের।

মিমি চক্রবর্তী Mimi Chakrabory

অভিনয়ের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন অভিনেত্রী। তাঁর ইন্সট্রাগ্রামের ফলোয়ার্স সংখ্যা শুনলে চোখ কপালে উঠবে আপনারও। তাঁর ইনস্ট্রগ্রামের ফলোয়ার্সের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ২৬ লক্ষেরও বেশি। তাঁর পোস্ট করা কোন ছবি হোক বা ভিডিও মুহূর্তে ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাঁর অনুরাগীরা রীতিমতো মুখিয়ে থাকে তাঁর ছবি ও ভিডিও পোস্টের অপেক্ষায়।

mimi-chakraborty

সম্প্রতি মিমি তাঁর ইন্সট্রাগ্রাম হ্যান্ডেলে একটি ছবি পোস্ট করেছেন। ছবি দেখে রীতিমত হার্ট বিট বেড়ে গিয়েছে পুরুষ অনুগামীদের। ছবিতে একেবারে রেড হট অবতারে হাজির হয়েছেন অভিনেত্রী। লাল রঙের পাতলা শিফনের শাড়ির সাথে মাছিল রেড ব্লাউজ আর সাথে হাতে লাল রাঙা কাঁচের চুড়ি। হাতের চুরির ফাঁকে দেখা যাচ্ছে নটরাজের ট্যাটু। উষ্ণ কোমল ঠোঁট আর বোল্ড চাহনি তো রয়েছেই।

মিমি চক্রবর্তী Mimi Chakraborty

এমন ছবি শেয়ার হলে ভাইরাল হতে কি আর সময় লাগে! ছবি শেয়ার হবার পর থেকেই তা নিমেষের মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। রীতিমত হুড়োহুড়ি পড়েছে মিমির রেড হট ছবি দেখার জন্য। তবে ছবিতে দেখে মনে হচ্ছে এটি একটি থ্রো ব্যাক ছবি, কারণ এর আগেও এই ধরণের ড্রেস পরেই ফটোশুট করতে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রীকে। ইতিমধ্যেই ছবিতে লাইকের সংখ্যা পেরিয়েছে ৫০ হাজারেরও বেশি। সাথে অনেকেই রেড হট বলে মন্তব্যও করেছেন ছবি দেখে।