বিনোদনলাইফ স্টাইল

৫৫ বছর বয়সেও পেটানো ফিগার, লক্ষ নারীর চোখের মণি! মিলিন্দ সোমনের ডায়েটে কী কী থাকে?

সংখ্যায় মাপলে মিলিন্দ সোমনের (Milind soman) বয়স ৫৫ বছর। কিন্তু তার মেদহীন টানটান পেটানো চেহারা, ফিটনেস, স্টাইল স্টেটমেন্ট যেন সেকথা মানতে নারাজ। মিলিন্দ একাধারে একজন মডেল তথা অভিনেতা। কিন্তু তার ফিটনেস দেখে হার্টবিট বেড়ে যায় অষ্টাদশীর যুবকদেরও।

আলিশা চিনাইয়ের হিট গান মেড ইন ইন্ডিয়া (Made in India ) এবং সোনু নিগমের (Sonu Nigam) ১৯৯৯ সালে ‘ইস কাদার প্যায়ার হে’ (Is qadar pyaar hey) এর মতো মিউজিক ভিডিওতে অভিনয় করার পর থেকেই বিপুল জনপ্রিয়তা পান।

মিলিন্দের ফিটনেস সিক্রেট জানতে সবসময়ই মুখিয়ে থাকেন তার অনুরাগীরা। এবার সমস্ত কৌতুহলের অবসান ঘটিয়ে অভিনেতা নিজেই শেয়ার করলেন তার ডায়েট চার্ট৷ ইন্সটাগ্রামে এদিন তার ডায়েট চার্ট শেয়ার করতেই তা নিয়ে মোটামুটি হইচই পড়ে যায় নেটপাড়ায়।

তার এই পেটানো চেহারার রহস্য হল কঠোর নিয়ম নিষ্ঠা এবং ডায়েট চার্ট এবং শরীর চর্চা। এক নজরে দেখে নিন মিলিন্দের ডায়েট চার্ট।

১০ টায় ব্রেকফাস্ট-

ঘুম থেকে উঠে প্রথমে যে খাবারটা খান তা হল প্রায় পাঁচশো মিলিলিটার একদম ঘরের তাপমাত্রার জল। তারপর বেলা বাড়লে সকাল দশটার দিকে তার প্রাতঃরাশের পাতে থাকে, কিছু বাদাম, একটি পেঁপে, একটি তরমুজ, আম। কিংবা মৌসুমী ফল। আর তা সংখ্যায় প্রায় চারটি।

২ টো নাগাদ লাঞ্চ-

ভাত-ডাল বা খিচুরি সঙ্গে সবজি। যার মধ্যে একভাগ ভাত-ডাল থাকলে ২ ভাগ থাকে সবজি। সঙ্গে ঘরে পাতা ঘি ২ চা চামচ। আর ভাত না খেলে ৬টি রুটি খান সবজি ও ডাল দিয়ে। খুব কম ওই মাসে একবার চিকেন/মটন বা ডিম খান তিনি।

বিকেল ৫টা নাগাদ গুড় দেওয়া এক কাপ চা খান মিলিন্দ।

ডিনার সারেন সন্ধে ৭টায়:

ডিনারে সাধারণত এক প্লেট সবজি খান। যদি খুব বেশি খিদে পায় তাহলে খিচুড়ি খান তিনি। তবে আমিষ খাবার খান না। রাতে শোওয়ার আগে এক কাপ গরম জলে হলুদ ও গুড় মিশিয়ে খান তিনি। প্যাকেটের খাবার বা প্রসেসড ফুড একেবারেই এড়িয়ে চলেন মিলিন্দ।

Related Articles

Back to top button