গসিপগানবিনোদনভিডিও

বাংলার জামাই হলেন মিকা সিং! প্রান্তিকার গান শুনে মুগ্ধ র‌্যাপার, শশুরবাড়ি এসে খেলেন জামাই আদর

বলিউডের ‘মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলর’দের মধ্যে অবশ্যই একজন হলেন গায়ক মিকা সিং (Mika Singh)। দেখতে দেখতে বয়স ভালোই হয়েছে কিন্তু বিয়েটা আর করে ওঠা হয়নি। এমনকি প্রেমটাও ঠিকমত করা হয়নি, অগত্যা বউ খুঁজতে শেষ্মে রিয়েলিটি শোয়ে হাজির হয়েছেন র‌্যাপার মিকা সিং। গায়কের বউ খোঁজার এই অনুষ্ঠানের নাম স্বয়ম্বর ‘মিকা দি ভোহতি’। আর শোতেই অবশেষে জীবনসঙ্গিনীকে খুঁজে পেলেন তিনি।

পাত্রী কে? গায়ককে বিয়ে করার জন্য অনেকেই হাজির হয়েছিল রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে। তবে সবার মাঝ থেকে বাঙালি  কন্যা প্রান্তিকে দাসই (Prantika Das) মন জিতেছে মিকা সিংয়ের। তবে একবারে সাধারণ বাঙালি কন্যা নন প্রান্তিকা। বিনোদন ইদনাস্ট্রির সাথে যুক্ত রয়েছেন তিনি। বাংলা ছবি থেকে দক্ষিণী ছবিতেও কাজ করতে দেখা গিয়েছে তাকে। শুধু তাই নয়, ভালো অভিনেত্রী হওয়ার পাশাপাশি ভালো গানও গাইতে পারেন প্রান্তিকা।

কিছুদিন আগে রিলিজ হওয়া দেবের ‘কিশমিশ’ ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন প্রান্তিকা। স্বয়ম্বরের মঞ্চে শুরু থেকেই মিকার চোখ আটকেছিল তাঁর দিকে। মিষ্টি ব্যবহার থেকে দুর্দান্ত গানের গলায় প্রথমেই মন গলে গিয়েছিল মিকার। তাছাড়া বেশ বাচ্চাদের মত আচরণ করেন তিনি মাঝে মধ্যেই। তাই প্রান্তিকাকে নিজেই ‘কিউট বাচ্চা’ বলে ডাকেন মিকা। দুজনের জুটি যে হিট হতে পারে এই নিয়ে আগেই কানাঘুসো শোনা যাচ্ছিল।

স্বয়ম্বরে একাধিক টাস্ক ছিল মিকাকে ইমপ্রেস করার জন্য। যার মধ্যে গান গেয়ে শোনানো ছাড়াও রান্না করে খাওয়ানোর পর্বও ছিল। আর এখানেও প্রান্তিকা কিন্তু সিদ্ধহস্তা, কারণ ভালো রান্নাও করতে জানে সে। তাই টক মিষ্টি চিকেন বানিয়ে মিকাকে রীতিমত সারপ্রাইজ দিয়েছিলেন তিনি রান্না পর্বে। তাছাড়া অনেকেই  হয়তো জানেন না মিকার সিংয়ের জন্ম দুর্গাপুরে। বাংলার ছেলে বলে কথা বাঙালি মেয়ের প্রতি টান তো থাকবেই!

ছোট বেলায় বাংলাতেই থাকতেন মিকা। তবে চার বছর বয়সে পরিবারের সাথে দিল্লিতে চলে যান তিনি। এরপর আজ বলিউডের জনপ্রিয় গায়কদের মধ্যে একজন মিকা সিং। সম্প্রতি রিয়েলিটি শোয়ের নিয়ম অনুযায়ী বিয়ের অআগেই শ্বশুরবাড়ি যাওয়া আর সেখানে শ্বাশুড়ি মায়ের থেকে জামাই আদর খাওয়ার পর্ব দেখানো হয়েছে।

সেখানে দেখা যাচ্ছে প্রান্তিকার কলকাতার বাড়িতে রীতিমত জামাই আদর পাচ্ছেন মিকা সিং। জিভে জল আনা বাঙালি খাবার সাজিয়ে আপ্যায়ন করা হয়েছে তাকে। এমনকি বিয়ের পরের দিন রীতি মেনে যে সমস্ত খেলা হয়, সেগুলিও করতে দেখা যাচ্ছে তাকে।

Related Articles

Back to top button