গসিপবিনোদনভাইরালভিডিওসিনেমা

মানালির বাচপান কা পেয়ার পরমব্রত! মিছিমিছি ফোন করে চুটিয়ে করতেন দুষ্টুমি

বাংলা ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় মুখ হলেন মানালি দে (Manali Dey)। ছোট পর্দার পাশাপাশি বড় পর্দাতেও এখন অবাধ বিচরণ তাঁর। এখন তিনি সেলিব্রেটি হলেও তাঁর ছোটবেলাটা ছিল আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের মতোই। তাই সকলের মতোই তিনিও চুটিয়ে দুস্টুমি করতে ভীষণ ভালোবাসতেন।সেইসাথে মজার সব কান্ডকারখানাও করতেন তিনি। যার মধ্যে অন্যতম ছিল ব্লাঙ্ক কল।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে সৌরভ গাঙ্গুলির (Sourav Ganguly) জনপ্রিয় টিভি শো ‘দাদাগিরি’র একটি বিশেষ পর্ব। সেই বিশেষ পর্বে অতিথি হিসাবে হাজির ছিলেন অভিনেত্রী মানালি দে, ঋদ্ধিমা ঘোষ (Ridhima Ghosh), পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় (Parambrata Chatterjee), গৌরব চক্রবর্তী (Gaurav Chakrabarty) ও সব্যসাচী চক্রবর্তী (Sabyasachi Chakraborty)।

সেখানে ‘দাদা’ সৌরভ গাঙ্গুলির সাথে মানালির কথা প্রসঙ্গে জানা যায় মানালি পরমব্রতের ডাই হার্ট ফ্যান। একথা শুনে উল্টো দিকে দাঁড়িয়ে থাকা পরমব্রত কিছুটা অপ্রস্তুত হয়ে যান। তবে প্রথমে তার একথা বিশ্বাস করতে না পেরে পরমের প্রশ্ন ‘সত্যিই কি তাই, মনে তো হয় না!’ এরপরেই কথা প্রসঙ্গে উঠে আসে ছোটোবেলায় ব্ল্যাংক কল করার কথা। তখন হাসতে হাসতে প্রকাশ্যেই মানালি স্বীকার করে নেন, ছোটবেলায় তিনিও ব্ল্যাংক কল করতেন। আর সেটা অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কেই করতেন।তবে সেইসাথে মানালি বলেন ‘পরমদা এখন আমার দাদার মতো। ‘ যা শুনে উপস্থিত সকলে হাসিতে ফেটে পড়েন।

দাদাগিরি’তে এসে মানালির মুখে এমন কথা শুনে কিছুটা অপ্রস্তুত হয়ে পড়েন পরমব্রত। এরপর তিনি জানতে চান কবে এটা? উত্তরে মানালি বলেন, ‘তখন আমি খুব সম্ভবত ক্লাস ৩-৪ এ পড়তাম। আমি ফোন করে বলতাম, পরমদা বলছেন? অপর দিক থেকে উত্তর আসতো, হ্যাঁ, কে? আমি তখন বলতাম, দাদা আমি না আপনাকে খুব পছন্দ করি। উত্তরে পরমদা বলতো আমি এখন ব্যস্ত আছি বলে ফোন রেখে দিত।’

মানালির কথা শুনে সৌরভ গাঙ্গুলিও ছোটোবেলার স্মৃতিচারণা করেছেন। দাদা বলেন  যে শুধু মানালি নয়, ছোটবেলায় সবাই ব্ল্যাংক কল করেছে। এমনকি তিনি নিজেও এমন ব্ল্যাংক কল করতেন। এটা শুনেই মানালি বলে ওঠে কাকে? তবে ফোনের ওপারে কে থাকতেন তা ফাঁস করতে চাননি মহারাজ।

Related Articles

Back to top button