গানবিনোদনভাইরালভিডিও

বেহালার মেয়ের সুরের জাদুতে মুগ্ধ হলেন লতা মঙ্গেশকর! ছোট্ট একটা টুইটেই জীবন বদলে গেল সমদীপ্তার

আজকের দিনে আমাদের দৈনন্দিন জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। এই সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এখন কত কিছুই না ঘটছে! বিশেষ করে লকডাউন চলাকালীন মন ভালো রাখতে নাচ ,গান, নিত্যনতুন রান্না কত কিছুই না করছেন সবাই। আর তা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা মাত্রই ভাইরাল হয়ে যাচ্ছে রাতারাতি।

গত বছর লকডাউন চলাকালীন বিশ্ব সঙ্গীত দিবসের দিন এভাবেই বাড়ি বসে গান গেয়ে গোটা দেশে ভাইরাল হয়ে গিয়েছিলেন বাংলার বেহালার মেয়ে সমদীপ্তা মুখোপাধ্যায় (Samadipta Mukherjee)। গানের জগতের মানুষ সমদীপ্তা। তাই ওই বিশেষ দিনে তাঁর ইচ্ছা হয়েছিল সঙ্গীতপ্রেমীদের জন্য একটু অন্য ধরনের গান উপহার দেওয়ার।

আর তাই খানিকটা শখ করেই অস্ট্রিয়ান সঙ্গীত পরিচালক উলফবার্গ মোৎজার্টের ৪০ নম্বর সিম্ফনি ভারতীয় সরগমে গেয়ে ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন সমদীপ্তা। সেই ভিডিও দেখে ফেসবুকে লাইক, কমেন্ট পড়লেও তখনও পর্যন্ত তা ভাইরাল হয়নি। কিন্তু সোশ্যাল চক্করে নানা মাধ্যমে ঘুরতে তা একসময় গিয়ে পড়ে স্বয়ং সুর-সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকরের (Lata Mangeshkar) হাতে।

তাঁর গান সুর-সম্রাজ্ঞীর এতটাই পছন্দ হয় যে তিনি গানের ভিডিওটি নিজের প্রতিটি সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে শেয়ার করেন। সমদীপ্তাকে প্রাণ ভরে আশীর্বাদ করে তিনি লেখেন ‘আমায় একজন এই ভিডিও পাঠিয়েছেন। অস্ট্রিয়ান সংগীতকার মোৎজার্টের ৪০ নম্বর সিম্ফনি জি মাইনর ভারতীয় সরগমে দারুণভাবে গেয়েছে মেয়েটি। ওকে আশীর্বাদ করি, যেন একজন ভাল গায়িকা হতে পারে।’

তারপরেই লতা মঙ্গেশকরের একটা ছোট্ট টুইট রাতারাতি জীবন বদলে যায় সমদীপ্তার। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়া, সংবাদমাধ্যম সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে সুর সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকরের আশীর্বাদ ধন্য সমদীপ্তার গানের ভিডিও। এর পর সমদীপ্তা জি বাংলার গানের রিয়ালিটি শো সারেগামাপা -এর প্রতিযোগি হিসাবে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এমনকি সংগীতের এই মহাযুদ্ধের চূড়ান্ত পর্বেও পৌঁছেছিলেন তিনি।

Related Articles

Back to top button