বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

পরের মেয়ে নয় আমার মেয়ে! হংসিনীকে কোল থেকে ছিনিয়ে নেওয়ায় কান্নায় ভেঙে পড়ল লক্ষ্মী

সিরিয়াল মানেই দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের একটি বিষয়। তাই অবসর সময়ে সিরিয়াল দেখতে ভালোবাসেন কমবেশি সকলেই। দর্শকমহলে দিনে দিনে বাড়ছে বাংলা সিরিয়ালের চাহিদা। তাই দর্শকদের চাহিদা পূরণের কথা মাথায় রেখে সন্ধ্যা হতেই নিত্যনতুন সিরিয়ালের ডালি নিয়ে হাজির হয় বিনোদন মূলক চ্যানেল গুলি। সেইসাথে রয়েছে টিআরপি (TRP) চার্টে এগিয়ে থাকার লড়াই।

তাই প্রতিপক্ষ চ্যানেল গুলিকে কড়া টক্কর দিতে বস্তাপচা কনটেন্ট নয় পরিবর্তে ভিন্ন স্বাদের গল্পকেই বাজি ধরছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই গত বছর থেকেই একের পর নতুন সিরিয়াল শুরু হয়েছে জি বাংলার পর্দায়। আর এখন তো চারিদিকে নারী শক্তির জয়জয়কার। তাই আজকাল সিরিয়ালেও বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে নারীকেন্দ্রিক চরিত্র। এভাবেই জি বাংলার তরফে কুর্নিশ জানানো হয়, আজকালকার দিনের মা, কাকিমাদের লড়াকু মানসিকতা কে।

এমনই বাস্তব জীবন থেকে উঠে আসা একেবারে ভিন্ন স্বাদের এমনই একটি সিরিয়াল হল জি বাংলার ‘লক্ষ্মীকাকিমা সুপারস্টার’ (Lakshmi Kakima Superstar)। এই ধারাবাহিকের অন্যতম প্রধান ইউএসপি হলেন স্বয়ং লক্ষ্মী কাকিমা,অর্থাৎ জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য। ছোট পর্দা থেকে চার বছর বিরতি নেওয়ার পর ফের এই সিরিয়ালের হাত ধরে ফিরে এসেছেন তিনি।

কি অভিনয় কি এক্সপ্রেশন সবদিক দিয়েই এক কথায় অসাধারণ এই লক্ষ্মী কাকিমা অভিনেত্রী, যাকে বলে একাই একশো। শুরু থেকেই দেখা যাচ্ছে এই সিরিয়ালের মাধ্য প্রতিদিন সংসারের ঘেরাটোপে থাকতে থাকতে দুহাতেই দশভূজা হয়ে ওঠা সুপারস্টার মা কাকিমাদের বাস্তব জীবনের গল্প। এই সিরিয়ালের যারা নিয়মিত দর্শক তারা জানেন বড়লোক বাড়ির মেয়ে হংসিনীকে একেবারে নিজের মেয়ের মতো ভালোবাসেন লক্ষ্মী কাকিমা।

সদ্য সিরিয়ালে দেখা যাচ্ছে হিরো অর্থাৎ লক্ষ্মী কাকিমার ছেলের আনা খাবার খেয়ে প্রচন্ড অসুস্থ হয়ে পড়েছে হংসিনী। এরপর লক্ষ্মী দ্রুত তার, হাঁসের বাবাকে ফোন করে খবর দেয় তার মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন তারা। সম্প্রতি এই পর্বের একটি ছোট ভিডিওতে দেখা গিয়েছে মাঝ রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে হংসিনী কে লক্ষ্মী কাকিমার কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় তার বাবা। এই পর্বে সন্তানের জন্য একজন মা হিসাবে লক্ষ্মী কাকিমার আকুল আর্তির অভিনয় মন ছুঁয়েছে দর্শকদের।

Related Articles

Back to top button