গসিপবিনোদন

সব ফুটেজ খাওয়ার ধান্দা, ও আবার ফিরবে! টুইটার থেকে বিদায় নেওয়ার পরেও করণ জোহরকে ধুয়ে দিলেন KRK

তারকা হলেই একদিকে যেমন অগাধ ভালোবাসা, সম্মান, খ্যাতি পাওয়া যায়, তেমনই আবার পান থেকে চুল খসলেই শুনতে হয় চরম কটাক্ষও। বলিউড তারকারা একথা বেশ ভালো করেই জানেন। আর বলিউড সেলেবদের ট্রোল হওয়ার কথা উঠলেই সবার প্রথমে যার নাম মাথায় আসে তিনি হলেন করণ জোহর (Karan Johar)। নেপোটিজম থেকে শুরু করে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু, করণকে বহুবার বহু কারণে কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছে।

সম্প্রতি এই সকল ‘নেতিবাচকতা’ থেকে দূরে যাওয়ার জন্য নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন ধর্মা প্রোডাকশন হাউসের কর্ণধার। সোমবার একটি টুইট করে সেকথা ঘোষণা করেন করণ। আর এবার এই বিষয় নিয়ে তাঁকে ফের একবার প্রকাশ্যে একহাত নিলেন জনপ্রিয় চলচ্চিত্র সমালোচক কেআরকে (KRK)।

Karan Johar in Koffee With Karan

করণ টুইটার থেকে বিদায় নেওয়ার পরই কেআরকে টুইট করেন, ‘প্রিয় করন,তুমি তোমার ফোন নম্বরও বদলে নিয়েছ। আর এখন তুমি টুইটার থেকেও বিদায় নিলে। এবার তাহলে ভবিষ্যতে তোমার সিনেমার আসল রিপোর্ট কীভাবে দেব? এটা একেবারেই ঠিক করলে না ভাই!’

এখানেই থামেননি কেআরকে। এরপর ফের একটি টুইট করেন বলিপাড়ার এই জনপ্রিয় সমালোচক। কেআরকে লেখেন, ‘আমি দেখছিলাম করণ জোহরের প্রত্যেক টুইটে মানুষ তাঁকে খুব বাজে ভাবে ট্রোল করছিল। শেষ পর্যন্ত ও নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট মুছে দিল। আমি সেই মানুষগুলিকে সমর্থন করি না যারা ওঁকে টুইটার থেকে বিদায় নিতে বাধ্য করেছে। তবে আমি এটা খুব ভালো করে জানি যে ওঁর পরিচালিত পরবর্তী সিনেমার আগে ও ঠিক টুইটারে ফিরে আসবে’।

করণ জোহরের সঙ্গে কেআরকে অম্লমধুর সম্পর্কের কথা কারোর অজানা নয়। কেআরকে যখন মাস খানেক আগে গ্রেফতার হয়েছিলেন তখন শোনা গিয়েছিল এর নেপথ্যে করণের হাত রয়েছে। কেআরকে যাতে তাঁর প্রযোজিত ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমার রিভিউ না করতে পারেন, সেই কারণেই তিনি এমন কাজ করেছিলেন বলে শোনা গিয়েছিল।

KRK

তবে জেল থেকে বেরিয়েই ‘ব্রহ্মাস্ত্র’কে ধুয়ে দিয়ে একাধিক টুইট করেন কেআরকে। সম্প্রতি আবার কেআরকে এও বলেন যে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ বলিউডের ইতিহাসের সবচেয়ে ফ্লপ সিনেমা।পাশাপাশি এও দাবি করেছিলেন, রণবীর কাপুর, আলিয়া ভাটের ছবির বক্স অফিস কালেকশন নিয়ে মিথ্যা বলছেন কর-সহ সকল নির্মাতারা।

Related Articles

Back to top button