গসিপবিনোদনভাইরালভিডিওসিনেমা

লকডাউনেও চুটিয়ে আড্ডা দিচ্ছেন কোয়েল! শেয়ার করলেন নিজের নামের মানে, দেখুন ভাইরাল ভিডিও

টলিউডের প্রথম সারির সুন্দরী নায়িকা কোয়েল মল্লিক (Koyel Mallick) এখন শুধু সুপারস্টারই নন সেইসাথে তিনি এখন হয়ে উঠেছেন সুপার মমও (Super Mom)। গত বছর লকডাউনের মধ্যে পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়ে সুখবর শুনিয়েছিলেন অভিনেত্রী। তারপর থেকে ছেলে কবীরকে (Kabir) ঘিরেই কাটছে অভিনেত্রীর জীবন। এখন ছোট্ট কবীরের বয়স মাত্র দেড় বছর। তাই ছেলেকে এখন একেবারেই চোখের আড়াল করেন না অভিনেত্রী।

তবে মা হওয়ার সাথে সাথে টলিউডের ব্যস্ত অভিনেত্রী তিনি। তাই মায়ের দায়িত্ব সামলেও নিজের পেশাতেও দারুণভাবে ব্যালেন্স করে চলেন কোয়েল। তবে শুটিংয়ের চাপ সামলেও ছেলে কবীরের প্রায়োরিটিই থাকে নায়িকার টপ লিস্টে।সেইসাথে এখন নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কেও বেশ সচেতন কোয়েল। তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে ভালো খাওয়া দাওয়ার পাশাপাশি এখন শরীরচর্চাতেও মন দিয়েছেন অভিনেত্রী।

এছাড়াও এখন সোশ্যাল মিডিয়াতেও (Social Media) বেশ অ্যাক্টিভ থাকেন অভিনেত্রী। মাঝে মধ্যেই ভক্তদের আড্ডায় মেতে ওঠেন তিনি। অভিনেত্রী মনে করেন বর্তমানে সামাজিক দূরত্বের কারণেই সোশ্যাল মিডিয়া হয়ে উঠেছে একমাত্র নিরাপদ আশ্রয়, যেখানে সকলের খবর রাখা যায়। গুরুত্বপূর্ণ তথ্য শেয়ার করা যায়, সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা যায়। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে (Instagram) এক মজার প্রশ্নোত্তর খেলায় যোগ দিয়েছিলেন কোয়েল। নেটিজেনরাও উপভোগ করছেন প্রিয় অভিনেত্রীর এই মজার খেলা।

দেখা যাচ্ছে মোবাইলের স্ক্রিনের একদিকে রয়েছেন কোয়েল, অন্যদিকে প্রশ্ন। সেখানে অনুরাগীদের করা একাধিক ছোট্ট প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন অভিনেত্রী। কেউ প্রশ্ন করেছেন তিনি, শেষ কবে ফুচকা খেয়েছেন। উত্তরে হাসতে কোয়েল জানান ‘অনেকদিন খাইনি। শেষ ২০১৯ এ খেয়েছি।’ এভাবেই একের পর এক তাঁর কাছে আসতে শুরু করে প্রশ্ন। অভিনেত্রীও খুশি মনে দিয়ে যান প্রত্যেকটি প্রশ্নের উত্তর। এমনই এক অনুরাগী তাঁর কাছে জানতে চান,’অভিনেত্রী না হলে কী হতেন?’ উত্তরে কোয়েল বলেন, ‘মনোবিদ.. অবশ্যই আমি একজন মনোবিদ হতে চাইতাম।’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Koel Mallick (@yourkoel)

আজ ইনস্টাগ্রামে এমনই একটি মজার রিল ভিডিও (Reel Video)পোস্ট করে অভিনেত্রী ইংরাজিতে নিজের নামের প্রতিটি অক্ষর ধরে ধরে বিশ্লেষণ করেছেন। অভিনেত্রীর কথায় কোয়েল শব্দের প্রথম অক্ষর ‘K’ মানেই তাঁর মাথায় প্রথমেই আসে কবীর অর্থাৎ তাঁর ছেলের নাম। এরপরেই আসে ‘O’ অর্থাৎ অপটিমেস্টিক যার অর্থ আশাবাদী,’E’ অর্থাৎ এনথুসিয়াস্টিক যার অর্থ উদ্যমী আর সবশেষে ‘L’ অর্থাৎ লাভ মানে ভালোবাসা। ক্যাপশনে অভিনেত্রী অনুরাগীদের কাছে জানতে চেয়েছেন ‘আমার নামের অক্ষরগুলির অর্থ তো এটাই, আপনাদের টা কি? ‘

Related Articles

Back to top button