বিনোদনভাইরালভিডিওসিরিয়াল

‘খড়কুটো’তে নতুন টুইস্ট! সৌজন্য-গুনগুনের সম্পর্ক জোড়া লাগাতে মাঠে নেমেছে শশুরমশাই

খড়কুটো (Khorkuto) সিরিয়াল একসময় বাংলার সমস্ত সিরিয়ালকে  একই  টেক্কা দিত জনপ্রিয়তার দিক থেকে। বর্তমানে সিরিয়ালের জনপ্রিয়তা কিছুটা কমেছে ঠিকই তবে দর্শকদের কাছে কিন্তু খড়কুটোর গল্পের আকর্ষণ রয়েই গেছে। বেশি কিছুদিন ধরেই  কেমন যেন খেই হারিয়েছে সিরিয়াল। হাসি-মজা উধাও হয়ে একের পর এক প্যাঁচ সৃষ্টি হচ্ছে। এই যেমন সৌজন্য আর বাড়ির সকলকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে এসেছে গুনগুন। ওদিকে সরাসরি না বললেও প্রেম বিরহে জ্বলছে সৌজন্য। এবার শেষমেশ জামায় আর মেয়েকে সামলাতে মাঠে নামলেন খোদ শশুরমশাই।

হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন, সৌজন্যের শশুরমশাই অৰ্থাৎ গুনগুনের বাবাই শেষ মেশ গুনগুন-সৌজন্যের (Gungun-Soujanyo) ভাঙা সম্পর্ক জোড়া লাগানোর গুরুদায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। অবশ্য এই কাজটা যে তিনি বেশ ভালোই পারেন তা সিরিয়ালের পর্বে বোঝাই যাচ্ছে। আসলে কৌশিকবাবু এটা ঠিকই  ধরতে পেরেছেন যে মুখে রাগ থাকলেও মনের মধ্যে কিন্তু প্রেম রয়েছে দুজনেরই।

সৌজন্যকে গুনগুনকে নিয়ে চিন্তা করা নিয়ে উত্তেজিত করেছেন কৌশিক বাবু। তখন সৌজন্য বলে সে বিদেশ চলে যাবে এখানে থাকবে না। সৌজন্যকে গুনাগুনের বাবা বলেছেন যে, ‘বউ পাত্তা দিচ্ছে না বলে বিবাগী হয়ে যাবে’!

ওদিকে গুনগুনকে গিয়ে বলেন যে সৌজন্য বিদেশ চলে যাবে। এই কথা শুনে গুনাগুনের মুখেও চিন্তার ভাঁজ স্পষ্ট হয়েছে। শেষে গুনগুনও বলেই ফেলে যে, ‘ওবাড়ির সকলে খুব ভালো। কখন যে ওবাড়িটা নিজের বাড়ি হয়ে গেছে বুঝতেই পারেনি গুনগুন। অবশ্য এর পিছনে যে সৌজন্যের জন্য মন খারাপ রয়েছে সেটাও স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে।

এবার এই প্রেমকে কাজে লাগিয়েই গুনগুন সৌজন্যের দূরত্ব মেটাতে তৎপর হয়েছে গুনগুনের বাবা। পরীক্ষায় ভালো রেজাল্টের জেদ মাথায় নিয়েই ওবাড়ি ফিরতে রাজি নয় গুনগুন। কারণ সৌজন্যের কাছে সে নিজেকে প্রমাণ করতে চায়। এদিকে গুনগুন চলে যাওয়ায় বাড়িটা ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। আর সৌজন্যের তো রীতিমত ঘুম উড়ে গিয়েছে পাগল গুনগুনকে ছাড়া।

বাড়ির সকলে মিলে গুনগুনকে ফেরত নিয়ে যেতে চাইলেও রাজি হয়নি সে। এদিকে সৌজন্যের সাথে পার্সোনালি কথা বলেও লাভ হয়নি বরং দুজনের মাঝে অভিমানের পাহাড় আরো বেশ খানিকটা বেড়ে গিয়েছে। এবার প্রেম আর অভিমানকে ব্যবহার করেই এক ঢিলে দুই পাখি শিকার করছেন গুনাগুনের বাবা।

প্রসঙ্গত, সিরিয়ালের এই দৃশ্যপট বদলকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি নেটিজেনরা। তাদের মতে সিরিয়ালটি অতিরিক্ত সিরিয়াস হয়ে যাচ্ছিলো। তাই প্রাথমিকভাবে এটা পরিকল্পিত না থাকলেও বর্তমানে সিরিয়ালকে হালকা করতেই এই বদল আনা হয়েছে। আবার কারোর মতে শুট ফ্রম হোমের সিরিয়াল লম্বা করার জন্যই এমনটা করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button