বিনোদনভাইরালভিডিওসিরিয়াল

TRP তলানিতে, পাল্টেছে টাইম স্লট! ‘খড়কুটো’য় মাসি দিদা টুইস্ট, অভদ্র বলতেই ক্ষেপে লাল গুনগুন

ষ্টার জলসার (Star Jalsha) জনপ্রিয় সিরিয়াল খড়কুটো (Khorkuto)। সৌজন্য আর গুনগুনের (Soujano Gungun) কাহিনী নিয়ে শুরু হয়েছিল সিরিয়ালের পথচলা। শুরুতে বেশ  জনপ্রিয়তাও পেয়েছিল খড়কুটো। TRP লিস্টে নাম থাকত প্রথম পাঁচের মধ্যেই। কিন্তু ধীরে ধীরে একাধিক টুইস্ট আর সম্পর্কের জটিলতার জেরে আজ সৌগুন জুটির জনপ্রিয়তা একেবারে তলানিতে। যার জেরে সিরিয়ালের টাইম স্লট পর্যন্ত বদলানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে  সিরিয়ালের টাইম স্লট বদলানোর আগেই একগুচ্ছ নতুন টুইস্ট নিয়ে হাজির হয়েছে খড়কুটো। গুনগুনকে লিটল গুনগুন আনার প্রস্তাব দিয়েছে সৌজন্য। এদিকে বাড়িতে পুচুসোনার অন্নপ্রাশনের তোড়জোড় চলছিল, তারই মাঝে অসুস্থ পটকা। পিটার যন্ত্রণায় কাতর পটকার চিকিৎসার জন্য অনেকটা টাকারও প্রয়োজন। সেই টাকা জোগাড় করতে গুনগুন নিজের গয়না বিক্রি করে টাকা জোগাড় করে। যেটা বাড়ির সবাইকে অবাক করে দিয়েছে।

তবে গুনগুনের আনা টাকায় অপারেশন হয়েছে পটকার। তাই বাড়ির সকলের মুখে হাসি ফুটেছে। কিন্তু এরই মাঝে হাজির আরও এক নতুন টুইস্ট। এবার মুখার্জী পরিবারে এসে হাজির হয়েছে মাসি দিদা। আর মাসি দিদা কিন্তু একেবারে মডার্ণ আদপ কায়দায় একেবারেই অভ্যস্ত নয়। বাড়িতে এসেই তার নজর পড়েছে গুনগুনের দিকে। বাড়ির বউ হয়ে অদ্ভুত পোশাক পরে ঘুরে বেড়াচ্ছে গুনগুন এই নিয়ে জ্যেঠাইমাকে কথা শুনিয়ে দিয়েছে মাসি দিদা।

অন্যদিকে অসভ্য বলতেই রণচন্ডি মূর্তি ধারণ করেছে গুনগুন। ‘তুমি আমাকে কি বলতে চাইছ আমি অসভ্য?’ এই বলেই মাসি দিদার ওপর চড়াও হয়েছে গুনগুন। এরপর তার ব্যাগ লাথি মেরে সরিয়ে দিয়েছে। এই দেখে মাসি দিদা ভাবছে সত্যিই সত্যিই বোধয় গুনগুনের মাথা খারাপ হয়ে গেছে।

এমনকি পরবর্তীকালে কাঠ নিয়ে তাড়া পর্যন্ত করেছে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে আবারও পুরোনো ফর্মে ফিরেছে গুনগুন। এই দেখে বাড়ির সকলে মিলে কোনো মতে আটকেছে গুনগুনকে। যা দেখে দর্শকের অনেকেই বলে উঠেছেন, এবার পুরোনো গুনগুন ব্যাক করেছে।

প্রসঙ্গত, একসময় গুনগুনের এমন পাগলামির জন্যই দর্শকদের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল খড়কুটো। এবার হয়তো সেই পাগলামি দিয়েই আবারো হারানো গৌরব পুনুরুদ্ধারের চেষ্টা চলেছে। তবে সিরিয়ালের এই টুইস্ট যে বেশ পছন্দ হয়েছে দর্শকদের সেটা বোঝাই যাচ্ছে। সম্প্রতি কিছু টুকরো দৃশ্য শেয়ার করা হয়েছে ফ্যান পেজের দ্বারা সোশ্যাল মিডিয়াতে। যা বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

Related Articles

Back to top button