বিনোদনভাইরালভিডিওসিরিয়াল

পুজোর নাটকে গরু মোষে ভর্তি! জ্যাঠাইয়ের আমোদগেরে গল্প শুনে হাসছে মুখার্জি পরিবার থেকে দর্শকেরা

বাস্তবে পুজো শেষ হলেও সিরিয়ালের পর্দায় কিন্তু পুজো পুজো আমেজ এখনো বর্তমান। জনপ্রিয় বাংলা সিরিয়াল খড়কুটোতে (Khorkuto) চলছে পুজোর সেলিব্রেশন। সৌজন্যের বাড়িতেই আয়োজন হয়েছে পুজোর, সেখানে গুনগুনের পরিবার থেকে সৌজন্যের পরিবার একসাথে হয়ে দারুন মজা আর হৈ হুল্লোড় হচ্ছে। পুজোর মণ্ডপেই আয়োজন করা হয়েছে নাটক থেকে নৃত্য প্রদর্শনের।

নাটকে জ্যাঠাই থেকে শুরু করে বাড়ির বড়দের শামিল করেছে গুনগুন। এমনকি নিজের ড্যাডিকেও নাটকের অংশ বানিয়েছে সে। আর নাটকের সংলাপ বলার সময় জ্যাঠাই বলেছেন, ‘আমি একদিন আমাদের এই গরুদের সহিত একটি মোষকে আনিয়া ফেলিলাম। শীর্ণকায় সেই মোষকে খাওয়াইয়া পরাইয়া বড় করিব, যার নাম রেখেছি আমোদগেরে’। এই শুনেই সকলে হেসে গড়াগড়ি।

আসলে বাড়ির জামাইকে প্রায় সর্বদাই মুখার্জী পরিবারেই থাকতে দেখা গেছে। তার বাবাকেই আমোদগেরে নাম সম্মোধন করে থাকেন জ্যাঠাই। এই শুনে বেয়ান মশাই রেগে গিয়ে নাটক ছাড়তে চেয়েছেন। যদিও তাতে লাভ কিছুই হয়নি। বরং সকলে হাসির চলেই নিয়েছে গোটা ব্যাপারটা। আর নাটকের এই সংলাপের লেখার দায়িত্ত্বে ছিল পটকা দি গ্রেট। তারই কারসাজিতে এই সমস্ত কান্ড ঘটেছে।

অবশ্য নাটকের আগে ছিল বাড়ির হল্লা পার্টি পটকা, পুটুপিসি, মিষ্টি এদের নিয়েই নাচের পালা। ‘কাঞ্চি রে কাঞ্চি রে’ গানেই হবে নাচ ঠিক করেছে গুনগুন। আর নাচের পর হবে নাটক। তবে নাটকের আগে নাচ নিয়েই হয়ে গিয়েছে একপ্রস্ত ঝগড়া থেকে হাতাহাতি। নাচ প্রাকটিসের সময় পুটুপিসির ঘাড়ে পড়ে গিয়েছে পটকা। তাতেই শুরু কেলেঙ্কারি।

পুটুপিসি পটকাকে মোষ বলে উঠতেই রেগে যায় পটকা। পুটু পিসিকে হাতি বলে দেয় পটকা। ব্যাস শুরু হয়ে যায় লড়াইয়ের, কেন একেঅপরকে মোষ আর হাতি বলেছে এই নিয়েই হাতাহাতি শুরু হয় পুজোর মণ্ডপেই। বাচ্চাদের মত দুজনকে লড়তে দেখে পরিস্থিতি সামাল দিতে আসে গুনগুন। রীতিমত ধমক দিয়েই থামানো হয় ঝগড়া। এরপর অবশ্য মিটমাট হয়ে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button