গসিপবিনোদনসিনেমা

হানিমুনে নিলামে উঠেছিলেন করিশ্মা কাপুর! বরের বন্ধুদের সাথে ‘শুতে’ বাধ্য করা হয়েছিল তাকে

বলিউডের অভিনেত্রী করিশ্মা কাপুর (Karishma Kapoor)। নব্বইয়ের দশকে বলিউডে প্রথম পা রেখেছিলেন অভিনেত্রী। বলিউডের ছবিতে অভিনেত্রীকে এখন খুব কমি দেখা যায়। শেষ তাকে দেখা গিয়েছে ‘মেন্টালহুড’ নামক একটি ওয়েব সিরিজে। তবে জানলে অবাক হবেন অভিনেত্রীর জীবনে একটা সময় ছিল যেটা খুবই বেদনা দায়ক। মেন্টালহুডের প্রমোশনে অভিনেত্রী ছবির সাথে নিজের ব্যক্তিগত জীবনের কিছু গোপন কথাও প্রকাশ্যে এনেছিলেন।

অভিনেত্রী ২০০৩ সালে ব্যবসায়ী সঞ্জয় কাপুরের (Sanjay Kapoor) সাথে বিয়ে করেছিলেন। যদিও ২০১৬তে বিয়ে ভেঙে গিয়েছিল, বিয়ে ভাঙার সময় কারিশ্মার ২টি সন্তান ছিল। বিবাহ বিচ্ছেদের সময় কারিশ্মা কাপুর সঞ্জয় কাপুরের বিরুদ্ধে তাকে মারধর ও অত্যাচার করার অভিযোগ এনেছিলেন।

সাথে আরো একই বিস্ফোরক গোপন তথ্য প্রকাশ্যে এনেছিলেন। যা শুনে সকলে রীতিমত অবাক হয়ে গেছিলেন। কারিশমা বলেন তিনি যখন সঞ্জয়ের সাথে হানিমুনে যান, তখন সঞ্জয় কারিশ্মাকে তার বন্ধুদের সাথে শোবার জন্য বাধ্য করেছিল। স্বাভাবিকভাবেই করিশ্মা এতে বাধা দিতে গেলে, সঞ্জয়ের সাথে তুমুল অশান্তি শুরু হয়েছিল।

এখানেই শেষ নয়, করিশ্মা আরো বলেন প্রথমবার তিনি যখন গর্ভবতী হন তখন তাকে সবথেকে বেশি নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছিল। সঞ্জয় রকারিশ্মাকে বিয়ে করার পরেও প্রথম স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক রাখতেন। গর্ভাবস্থায় থাকা কালীন কারিশ্মার শাশুড়ি তাকে একটি পোশাক দিয়েছিলেন পড়ার জন্য, যেটা অভিনেত্রী পড়তে পারেননি। যার ফলে অভিনেত্রীকে শারীরিক নির্যাতন থেকে শুরু করে গালে চড় পর্যন্ত মারা হয়েছিল।

সঞ্জয় নিজের ভাইকে কারিশ্মার ওপর নজর রাখার দায়িত্ব দেন। এছাড়া প্রায় সময়েই অল্প কথায় রাগারাগি থেকে শুরু করে মারধর পর্যন্ত শুরু হয়। শেষে ২০১২ সালে কারিশ্মা তার দুই সন্তানদের নিয়ে মুম্বাই ফিরে আসেন ও শেষে ২০১৬ সালে বিবাহ বিচ্ছেদ দেন সঞ্জয় কাপুরকে।

Related Articles

Back to top button