গসিপবিনোদন

বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে দীর্ঘ ৪ ঘন্টা ধরে আমিরকে চুম্বন ! আজও সেই স্মৃতি ভোলেননি করিশ্মা

বলিউডের অন্দরে কান পাতলেই শোনা যায় নানান রসালো গল্প। আর একেকজন অভিনেতা, অভিনেত্রী তাদের কাটিয়ে আসা নানান মুহূর্ত নিয়ে মুখ খুললেই সেগুলো নিয়ে চর্চা চলতে থাকে তাদের অনুরাগীদের মধ্যে। এসব চর্চিত গল্প শুনলে অবাক হয়ে যেতে হয়। সালটা ১৯৯৬ সেই সময় বক্স অফিসে সুপারডুপার হিট হয়েছিল আমির খান (Amir Khan) ও করিশ্মা কাপুরের (Karishma Kapoor) ‘রাজা হিন্দুস্তানি’ (Raja Hindusthani)।

গ্রামের এক ট্যাক্সি ড্রাইভারের সাথে ধনী পরিবারের মেয়ের প্রেম হয়ে যায়। পরিবার থেকে সেই প্রেমে মেনে নেয়না ও কঠিন প্রেম পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয় ছবির হিরো হিরোইনকে। এই ছিল ছবির মূল গল্প। তবে ছবিতে ছিল আরো একটি বিশেষ আকর্ষণ। যার কারণে ছবিটি চূড়ান্ত সফলতা অর্জন করেছিল।

বলিউড চুমু দৃশ্য Bollywood Kissing Scene

ছবিতে আমির করিশ্মার একটি চুম্বনের দৃশ্য ছিল। বৃষ্টির নীচে আমির করিশ্মার সেই ঘনিষ্ঠ চুম্বন নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল বলিমহল। এই দৃশ্যের শ্যুট নিয়ে অন্যরকম অভিজ্ঞতা রয়েছে করিশ্মার। জানা যায়, প্রায় তিনদিন ধরে এই চুমুর দৃশ্য শ্যুট করতে হয়েছিল আমির করিশ্মাকে। একের পর এক টেক, শট কিছুতেই মনের মত হচ্ছিল পরিচালকের। সেই দৃশ্যে শ্যুট করা ছিল বিস্তর কষ্টের। উটিতে টানা তিনদিন ধরে চলতে থাকে এই শ্যুটিং। মাসটা ছিল ফেব্রুয়ারি।

ছবিতে আমির খান ও কারিশমা কাপুরের মধ্যে প্রেম শুরু হলে বর্ষায় সিক্ত হয়ে গাছের তলায় একটি চুম্বনের দৃশ্য দেখানো হয়েছিল। বলিউডের ইতিহাসে সেটি ছিল সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে চলা চুম্বন। কারণ, চুমু খেতে খেতেই দিন গড়িয়ে রাত হয়ে যায়। ছবির প্রযোজক ধর্মেশ নিজেই স্বীকার করেছিলেন যে এটি ভারতীয় চলচ্চিত্রের সবচেয়ে দীর্ঘতম চুম্বন।

ধর্মেশ ভেবেছিলেন যে হয়তো ছবির চুম্বনের দৃশ্যটি সেন্সরে কাটা পড়বে। কিন্তু তা হয়নি সেন্সর বোর্ড ছবিটিকে ইউ রেটিং দিয়ে পাশ করেছিল। কিন্তু চুম্বনের দৃশ্যটি এতটাই বড় ছিল যে গোটা ছবিটির দৈর্ঘ্য হয়েছিল ৩ ঘন্টা ২০ মিনিট। আর দর্শকেরা ৩ ঘন্টায় ছবি দেখে অভ্যস্ত, যার ফলে ছবি থেকে ২০ মিনিটের দৃশ্য কেটে বাদ দিতে হত। শেষমেশ পরিচালক নিজেই ছবি থেকে চুম্বনের কিছু দৃশ্য বাদ দিয়েছিলেন। ছবিটি রিলিজের পর ২৪ বছর কেটে গিয়েছে। আজ ২০২০তে এসে ছবি থেকে চুম্বনের কিছু দৃশ্য বাদ দেবার কারণ এতদিনে খোলসা করলেন পরিচালক।

Related Articles

Back to top button