গসিপবিনোদনসিনেমা

নিখুঁত মা নই! তৈমুরের ‘পটি’ পরিস্কার করতে হিমশিম খেতেন করিনা, বলছে প্রেগনেন্সি বাইবেল


সদ্য প্রকাশ্যে এসেছে করিনা কাপুর খানের ( Kareena Kapoor Khan) তৃতীয় সন্তান অর্থাৎ প্রেগন্যান্সি নিয়ে লেখা তাঁর প্রথম বই ‘প্রেগন্যান্সি বাইবেল’ (Pregnancy Bible) । পবিত্র বাইবেল শব্দটিকে নিজের বইতে ব্যবহার করায় ইতিমধ্যেই বিতর্কের মুখে পড়েছেন অভিনেত্রী।তবে শুরু থেকেই এই বই নিয়ে নায়িকা এতটাই উৎসাহী ছিলেন যে বইটিকে নিজের সন্তান বলেই উল্লেখ করেছিলেন তিনি।৪০ বছর বয়সে চলতি বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় সন্তানের মা হয়েছেন করিনা কাপুর খান। তাঁর বয়স এখন মাত্র চার মাস। ছোটো ছেলে জেহ (Jeh) ছাড়াও অপর সন্তান তৈমুর (Taimur) কে নিয়েও রীতিমতো ব্যস্ত থাকেন অভিনেত্রী।

তবে হওয়ার পাশাপাশি নিজের প্রথম প্রেগন্যান্সি থেকেই কাজ আর ব্যাক্তিগত জীবন দারুণ ভাবে ব্যালেন্স করে চলেছেন এই বলিউড ডিভা।যা অনুপ্রাণিত করবে অসংখ্য মহিলাকে। কিন্তু নিজেকে কোনোভাবেই ‘নিখুঁত’ বা ‘পারফেক্ট’ মা বলতে রাজি নন করিনা। প্রেগন্যান্সির নানান খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে লেখা বই ‘প্রেগন্যান্সি বাইবেল’ একথা নিজেই জানিয়েছেন অভিনেত্রী। এমনই অকপট স্বীকারোক্তির সাথে সাথেই করিনা আরও জানিয়েছেন তৈমুরের জন্মের পর কীভাবে নানান ছোটখাটো বিষয় নিয়েও ঝক্কি পোহাতে হয়েছে তাঁকে।

Kareena Kapoor Taimur and Saif ali khan

এছাড়াও বইতে দুই সন্তান কে মানুষ করার পাশাপাশি সংসার সামলানোর সিক্রেট শেয়ার করেছেন করিনা কাপুর খান। এবিষয়ে করিনা তাঁর বই প্রেগন্যান্সি বাইবেলে লিখেছেন, ‘দুই সন্তানকে বড় করার সময় একটা আদর্শেই বিশ্বাসী ছিলাম। আর তা হল নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করা এবং তারপর রিল্যাক্স করা।’

Kareena Kapoor Taimur

নিজের সিক্রেট শেয়ার করে করিনা লিখেছেন, ‘প্রথমবার মা হওয়ার পর বাচ্চার ছোটছোট কাজ করতে গিয়ে ভুল করে ফেলার মধ্যে আলাদাই একটা মজা আছে। আমি তৈমুরের পটি পরিষ্কার করতে পারতাম না ঠিক করে। না ওকে ঠিকঠাক করে ডায়পার পরাতে পারতাম । আর ডায়পার ঠিকভাবে না পরানোর জন্য কতবার তা লিক করেছে তার ঠিক নেই। কিন্তু আমার বিশ্বাস একজনের পক্ষে ঠিক যতটা সম্ভব ততটাই করা উচিত। তোমার সন্তান ঠিক বুঝে নেবে তোমাকে। এটা মেনে চলতাম বলেই আমার পক্ষে এত জলদি কাজে যোগ দেওয়া সম্ভব হয়েছে।’

Complaint against Kareena Kapoor Pregnency Bible

তবে জেহ-র জন্মের পর থেকেই তাঁকে ক্যামেরার ফ্ল্যাশ থেকে দূরেই রেখেছেন সেইফ করিনা। তৈমুরের বেলায় তাঁকে জনসমক্ষে এনে যে ভুল করেছিলেন তা আর দ্বিতীয় সন্তানের বেলায় করেননি বেবো। প্রসঙ্গত সন্তান জন্মের পরেও আবার কীভাবে কাজের জগতে ফেরা যায় সে ব্যাপারে এক জলজ্যান্ত উদাহরণ তৈরি করেছেন করিনা। তাই জেহ-র জন্ম হওয়ার মাস খানেকের মধ্যেই নেটফ্লিক্সের সেলেব্রিটি কুকিং শো-তে যেমন দেখা গিয়েছিল তাঁকে তেমনি তৈমুরের যখন মাত্র ৪০ দিন তখনও, চুটিয়ে কাজ করেছিলেন বেবো।

Related Articles

Back to top button