গসিপবিনোদনসিনেমা

গর্ভে সন্তানকে নিয়েই শুটিং! কাজ চলাকালীন জ্ঞান হারিয়েছিলেন কারিনা কাপুর

বলিউডের প্রথমসারির অভিনেত্রী কারিনা কাপুর (Kareena Kapoor Khan)। সিনেমা থেকে শুরু করে গসিপ সর্বদাই চর্চায় রয়েছেন অভিনেত্রী। এবছরেই দ্বিতীয়বার মা হয়েছেন কারিনা। দ্বিতীয়বারের পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন অভিনেত্রী। আর সন্তান জন্ম দেবার অভিজ্ঞতা নিয়েই  আস্ত একখানি বই লিখে ফেলেছেন। মাতৃত্বের অনুভূতি নিয়ে লেখাই বইটির নাম দিয়েছেন ‘প্রেগনেন্সি বাইবেল’। কি আছে এতে? এই বইয়ে নিজের যারা মা হতে চলেছেন  তাদের জন্য পরামর্শ থেকে শুরু করে নিজের মা হবার অনুভূতির সম্পর্কে বিস্তারিত লিখেছেন অভিনেত্রী।

সদ্য প্রকাশিত এই বইতে নিজের মাতৃত্বের খুঁটিনাটি  সম্পর্কে লিখেছেন কারিনা। যেখানে তৈমুর থেকে শুরু করে দ্বিতীয় সন্তানের  জন্মের আগের সমস্ত তথ্য রয়েছে। এমনকি এই বই থেকেই জানা গিয়েছে কারিনার দ্বিতীয় সন্তানের নাম রেখেছেন ‘জে’। বইতে  প্রথমে তৈমুর আর পরে জে এর মা হবার অনুভূতি নিজের মত করে জানিয়েছেন কারিনা। তার মতে যারা মা হতে চলেছে তাদের জন্য এই বইটি অনেকটাই উপকারী হবে।

Kareena Kapoor কারিনা কাপুর

কারিনার এই প্রেগনেন্সি বাইবেল থেকেই জানা গিয়েছে একটি চমকপ্রদ ঘটনার কথা। দ্বিতীয়বার গর্ভবতী হলেও কারিনা কিন্তু নিজের কাজের সাথে আপোষ করেন নি। গর্ভবতী অবস্থাতেই চালিয়ে গিয়েছেন শুটিং। ‘লাল সিংহ চড্ডা’ ছবিটি শুটিং থেকে শুরু করে বিজ্ঞাপনের শুটিং সমস্তটাই সামলে চেন গর্ভে দ্বিতীয় সন্তানকে নিয়েই। আর এমনই একদিন শুটিংয়ের মাঝে জ্ঞান হারিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

কারিনা কাপুর Kareena Kapoor

ঠিক কি কারণে অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন কারিনা বা তারপর কি হয়েছিল সেটা স্পষ্ট উল্লেখ নেই। তবে কারিনা লিখেছেন, ‘লোকে ভাবে সেলেব্রিটিদের সবকিছুটাই বুঝি আলাদা  হয়। এমনকি গর্ভবতী হলেও তাঁরা বেশ জৌলুসে ভরপুর থাকেন। গ্ল্যামারের এতটুকুও ক্ষতি নয় না। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ ভুল, কারণ সেলেব্রিটি হলেও আমরা মানুষ। শরীরে স্ট্রেচ মার্ক এসেছিল, চেষ্টা করেছি নিজেকে সুন্দর দেখানোর যতটা সম্ভব। তবে দাগ আমার শরীরেও এসেছিল।

তবে বইয়ের নাম প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে বিতর্কের। বাইবেল যেহেতু খ্রীষ্টানদের ধর্মগ্রন্থের নাম তাই ইতিমধ্যেই পুলিশের কাছে অভিযোগ জমা পড়েছে কারিনা সহ লেখিকা ও বইটির প্রকাশকের নামে। ইচ্ছাকৃতভাবে ধর্মীয় বিস্বাসে আঘাত করতে চাইছেন কারিনা এই মর্মেই জারি হয়েছে অভিযোগ। অবশ্য অভিযোগ জমা পড়লেও FIR দায়ের করা হয়নি। অবশ্য কারিনার মতে, তিনি যা কিছু লিখেছেন সবটাই সত্যি। অভিনেত্রী আশা করেন এই বইটি পড়লে হবু মায়েরা ভরসা পাবেন আর খুশি হবেন।

Related Articles

Back to top button