বিনোদন

আমি চাইনা জাহাঙ্গীর, তৈমুর সিনেমায় আসুক! সইফ চাইলেও ছেলেদের অভিনেতা বানাতে চাননা করিনা

স্টার কিডস’-(Star Kid) দের মধ্যে এই মুহুর্তে বলিউডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন পতৌদি পরিবারের ছোট্ট সদস্য তৈমুর আলি খান (Taimur Ali Khan)। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে একথা অজানা নেই কারও। সইফ-করিনার (Saif- Kareena) এই সন্তানের বয়স চার হলে কী হবে, এখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। তাঁর নতুন ছবি প্রকাশ্যে আসতেই তাঁকে নিয়ে রীতিমতো হইচই পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এত অল্প বয়সে তাঁকে নিয়ে পাপারাৎজির মাথা ব্যথা দেখে রীতিমতো কমপ্লেক্সে ভুগতে পারেন যে কোনো সেলিব্রেটিই। এখনই ছোটে নবাবের ক্যারিশ্মা এতটাই উজ্জ্বল যে তাঁর পাশে ফিকে হয়ে যায় বাবা সইফ এবং মা করিনার চোখ ধাঁধানো গ্ল্যামারও।

রাস্তাঘাটে যেখানেই বের হন কেন তাঁকে ঘিরে ধরে পাপারাৎজির একঝাঁক ক্যামেরা। আর এখন থেকেই কাওকেই নিরাশ করেন না তৈমুরও। ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে দিব্যি পোজও দিতে দেখা যায় তাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ইতিমধ্যেই হাজারো ফ্যান ক্লাবের ছড়াছড়ি।

ঠিক এই কারণেই তাদের দ্বিতীয় পুত্র জাহাঙ্গীরকে সকলের সামনে আনতে চাননি সইফিনা। কারণ তাকে এক ঝলক দেখা মাত্রই যেভাবে পাপারাজ্জিরা ঘিরে ধরেন, অথবা যেভাবে তার ছবি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের পাতায় ছেপে বেরোয়, তা একটি শিশুর জন্য মোটেই সুখকর নয়। যদিও সইফ এর আগেই জানিয়েছিলেন তিনি চান তৈমুর অভিনয়ে পা রাখুক।

কিন্তু সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলিউডের অভিজ্ঞ মম্মা করিনা জানান, তিনি চান না তাঁর দুই সন্তান তৈমুর (টিম) ও জাহাঙ্গীর (জে) সিনেমায় আসুক। এখন ওরা খুব ছোট, আর এটিই ওদের ব্যক্তিত্ব গঠনের সঠিক সময়। তাই বেবো দেখতে চান, ওদের কী বিষয়ে আগ্রহ তৈরি হয়।

তিনি জানান, “তৈমুরের ব্যক্তিত্ব অনেকটাই ওর বাবা সইফের মতো। জাহাঙ্গীর আমার ও সইফের দু’জনেরই ব্যক্তিত্ব পেয়েছে। টিম স্যাজিটেরিয়ান। ও খুব শিল্প মনস্ক, শৈল্পিক বিষয়ে ওর আগ্রহ আছে। ছবি আঁকতে ভালবাসে। রং করতে পছন্দ করে। বিভিন্ন বিষয়ে জানার আগ্রহ প্রকাশ করে টিম। জে পাইসিয়ান। দেখি ওর আগ্রহ কীসে তৈরি হয়…”

Related Articles

Back to top button