বলিউডকে আট ধরণের ‘সন্ত্রাসবাদ’ থেকে বাঁচাতে হবে, তেলুগু ভারতের সবথেকে বড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি : কঙ্গনা রানাউত


সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে প্রায় প্রতিদিনই একাধিক বিষয় নিয়ে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। গত একমাস যাবত বহুবার বিতর্কে জড়িয়েও বিন্দুমাত্র ধৈর্য্য হারাননি অভিনেত্রী। একাধিক পরিচালক অভিনেতাদের তার নিশানায় বিদ্ধ করেছেন অভিনেত্রী। এবার বলিউডকে ৮ ধরণের সন্ত্রাসবাদের হাত থেকে বাঁচানোর আর্জি জানিয়ে, একটি ঝাঁঝালো টুইট করেন কঙ্গনা।

ফিল্মইন্ডাস্ট্রির ৮ ধরণের ‘সন্ত্রাসবাদের’ উল্লেখ করে শনিবার বলিউড কুইন কঙ্গনা রানাউত একটি টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘‌আমাদের বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসবাদের হাত থেকে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে হবে। আমাদের বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসবাদের হাত থেকে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে হবে। যেমন- ১)‌ স্বজন পোষণ সন্ত্রাসবাদ ২)‌মাদক মাফিয়া সন্ত্রাসবাদ ৩)‌ যৌনতা সন্ত্রাসবাদ ৪)‌ ধর্মীয় ও আঞ্চলিক সন্ত্রাসবাদ ৫)‌ বিদেশি ছবি সন্ত্রাসবাদ ৬)‌ পাইরেসি সন্ত্রাসবাদ ৭)‌ শ্রমের শোষণ সন্ত্রাসবাদ ৮)‌ প্রতিভা শোষণ সন্ত্রাসবাদ।

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে মেগা বাজেটের ফিল্ম সিটি বানানোর প্রস্তাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। আদিত্যনাথের এই ঘোষণাকে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি বলিউড ইন্ডাস্ট্রির কটাক্ষ করে তেলেগুকেই ভারতের বৃহত্তম ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বলে মন্তব্য করেন তিনি। বলিউডকে কোণঠাসা করতে আরও খানিক অকপট হতে দেখা গেল তাকে। তিনি টুইটারে ফের লিখলেন, ” লোকে ভাবে যে দেশের বিনোদন জগতের শীর্ষে অবস্থান করছে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। কিন্তু ভুল! তেলুগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি দেশের বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষায় সিনেমা প্রয়োজনা করে নিজেদের উচ্চতার শিখরে নিয়ে গিয়েছে। অনেক হিন্দি সিনেমারই তো শুটিং হয়েছে রামোজি ফিল্ম সিটিতে।” এমনকি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বহু সংস্কারের দাবিতেও সরব হন কঙ্গনা। তিনি সমস্ত ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে একত্রিত করে একটি সমবেত শিল্প গড়ে তোলারও আর্জি জানান।


Like it? Share with your friends!

719
719 points