খবরবিনোদনসিনেমা

কোনো কাজ নেই হাতে, টাকার অভাবে বিপুল পরিমাণ আয়কর দিতে ব্যর্থ কঙ্গনা রানাউত!

বলিউডের অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) বরাবরই খবর শিরোনামে থাকেন। সম্প্রতি আবারো শিরোনামে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রকে। আসলে বলিউডের অভিনেত্রীদের মধ্যে সর্বাধিক করদাতা কঙ্গনা। অর্থাৎ বলাবাহুল্য দেশের সবচাইতে বেশি ট্যাক্স যারা দেন তাদের মধ্যে অন্যতম একজন অভিনেত্রী নিজেই। কিন্তু বর্তমানে সর্বাধিক ট্যাক্স দাতা হয়েই মুশকিলে পড়েছেন অভিনেত্রী। হাতে কোনো কাজ নেই তাই টাকাও নেই, সেই কারণে বিশাল অঙ্কের ট্যাক্স দিতে পারছেন না তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে সচরাচর বেশ সক্রিয় অভিনেত্রী। মূলত টুইটার ব্যবহার করতেন সাথে ছিল ইনস্টাগ্রাম। কিন্তু বেশ কিছুদিন হল অভিনেত্রীর অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্যান করা হয়েছে। এর পর থেকে আপাতত ইনস্টাগ্রাম থেকেই অনুরাগীদের সাথে যোগাযোগ  রাখছেন কঙ্গনা। ইনস্টাগ্রামে ৭৬ লক্ষেরও বেশি অনুগামী রয়েছে তাঁর।

 

 

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে নিজের দুঃখের কথা শেয়ার করেছেন কঙ্গনা। অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘দেশের সবচাইতে বেশি করদাতাদেড় মধ্যে আমি একজন। নিজের আয়ের ৪৫ শতাংশই আয়কর দিই আমি। এমনকি দেশের সর্বাধিক করদাতা অভিনেত্রীও আমিই। কিন্তু  কোনো কাজ না থাকার জন্য আমি আমার গত বছরের আয়করের অর্ধেক টুকুও দিতে পারিনি। জীবনে এই প্রথমবার আমি ইনকাম ট্যাক্স বা আয়কর দিতে দেরি করলাম’।

এরপর অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘ভারত সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী আমার বকেয়া আয়করের ওপর ইন্টারেস্ট দিতে হচ্ছে। তবে আমি এই নিয়মকে স্বাগত জানাচ্ছি। আসলে আমাদের সময়টা প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই আলাদা আলাদা করে কঠিন ঠিকই তবে এই দুঃখের সময় আমরা ঠিকই কাটিয়ে উঠতে পারব। আমরা একত্রে এই দুঃসময়ের থেকেই বেরিয়ে এসব আরো শক্ত সামর্থ্য হয়ে ‘।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে অভিনেত্রী নিজেও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন কঙ্গনা। তবে করোনাকে মহামারী হিসাবে মানতে চাননি তিনি। তার মতে এটা একটা সামান্য ফ্লু মাত্র, কয়েকদিনেই সেরে যাবে। এরপর কিছুদিন পর সুস্থও হয়ে উঠেছেন অভিনেত্রী।

Related Articles

Back to top button