অক্সিজিনের অভাবে প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ! সমস্যার সমাধানে টুইট করে কটাক্ষের মুখে কঙ্গনা


বলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut)। নিজের নানা ধরণের মন্তব্যের কারণে প্রায়শই শিরোনামে উঠে আসতে দেখা যায় অভিনেত্রীকে। সম্প্রতি দেশে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ এসেছে। আর এই দ্বিতীয় ঢেউ আগের থেকে অনেক বেশি ক্ষতিকর ও ব্যাপকভাবে মানুষকে করোনা আক্রান্ত করছে। শুধুমাত্র বিগত ২৮ ঘন্টায় অর্থাৎ ২১ তারিখে সারাদেশে ৩ লক্ষ্য ১৪ হাজারেরও বেশি করোনা সংক্রমিত হওয়ার খবর মিলেছে।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার  জন্য পর্যাপ্ত পরিমান অক্সিজেনের অভাব দেখা গিয়েছে। বলতে গেলে অক্সিজেনের জন্য হাহাকার পরে গিয়েছে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে। রাজধানী দিল্লি, মুম্বাই, মহারাষ্ট্র ইদ্যাদি জায়গায় পরিস্থিতি আরো খারাপ। অক্সিজেন না পেয়ে মারা যাচ্ছে বহু করোনা রোগী। এমন পরিস্থিতিতে কঙ্গনা তাঁর সোশ্যাল মিডিয়াতে  একটি টুইট  করেছেন। সেই টুইটে দেহে  অক্সিজেন অক্সিজেনের মাত্রা বাড়ানোর উপায় বাতলেছেন অভিনেত্রী।

Kangana Ranaut

অভিনেত্রী তাঁর টুইট লিখেছেন, ‘যে সমস্ত ব্যক্তিরা রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাবার সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা অবশ্যি এই পদ্ধতি অবলম্বন করুন। বৃক্ষরোপনই হল অক্সিজেন অভাবের সমস্যার প্রধান সমাধান। তবে সেটা যদি না পারেন তাহলে গাছ কাটবেনও না। নিজেদের জামাকাপড় পুনরায় ব্যবহার করুন, বৈদিক মতে নিজেদের ডায়েট সেট করুন। সাথে অর্গানিক ভাবে জীবন যাপন করুন’। এই বার্তার সাথে কঙ্গনা একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন।

ভিডিওটিতে এক মহিলা কিছু বয়ামের সাহায্যে নিজের অক্সিজেনের মাত্রা মুহূর্তের মধ্যেই স্বাভাবিক করে ফেলছেন। কঙ্গনার মতে এভাবে অক্সিজেনের অভাবের সমস্যা হলে সাময়িক সমাধান পাওয়া সম্ভব। এই টুইটটি করার পর এবস ভাইরাল হয়ে পরে। আর ভাইরাল হবার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়াতে কটাক্ষের শিকার হয়েছেন অভিনেত্রী। বহু মানুষ অভিনেত্রীকে তার এমন ধরণের মন্তব্যের জন্য ট্রোল করছেন।

এক নেটিজেনদের মতে, ‘হ্যাঁ ম্যাডাম আপনি একদম সত্যি কথা বলেছেন। একটি হাসপাতালে অক্সিজেন ছিল না তখন ডাক্তারের জানালা খুলে দিয়েছিল। যাতে ক্রিটিক্যাল অবস্থার রুগীরা আরো বেশ ইকরে ফ্রেশ অক্সিজেন নিতে পারে হাওয়া থেকে। এরপর তারা আইসিইউ এর ভিতরেই একটি গাছ পুঁতেছেন। এখন তো ডাক্তারের রুগীদের থেকে বেশি গাছটির দেখাশোনায় ব্যস্ত আছেন’। এমন নানা ধরণের ট্রোল করা হতে থাকে অভিনেত্রীর এই টুইটকে ঘিরে।