AIIMS এর রিপোর্ট ভুল, খুন করা হয়েছে সুশান্তকে, যুক্তি দিয়ে প্রশ্ন করলেন কঙ্গনা


সুশান্ত সিং  এর মৃত্যুর পর থেকে যত দিন যাচ্ছে রহস্যের জাল তত জটিল হতে থাকছে। তার মৃত্যু যে আত্মহত্মা নয় সেই নিয়ে সরব হয়েছিল সুশান্তের অগনিত ফ্যানেরা, দেশে বিদেশে সুশান্তের বিচারে সরব ছিল লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ। এরপর CBI তদন্তের ভ্যান নেয়, উঠে  আস্তে থাকে একের পর এক অজানা তথ্য, মাদককাণ্ডের যোগসূত্র মেলে। শেষমেশ সুশান্তের দেহ পাঠানো হয় AIIMS এ মৃত্যুর আসল সত্য উদ্ঘাটনের জন্য।

গত ২৮ সে সেপ্টেম্বর AIIMS এর সুশান্তের তদন্তের ভারপ্রাপ্ত ডঃ সুধীর গুপ্ত জানিয়েছেন ”  সুশান্তের শরীর থেকে কোনো আঘাতের চিহ্ন মেলেনি, কোনোরকম মারপিট বা হাতাহাতিরও চিহ্ন নেই। এমনকী মারা যাবার সময় সুশান্ত যে কাপড় পরে ছিলেন তাতেও সেরকম কোনো তথ্যপ্রমাণ মেলেনি। সুশান্তের দেহের ২০% ভিসেরা নিয়ে পরীক্ষা করেছিলেন AIIMS এর ডাক্তারের। তাদের মতে খুনের কোনো  প্রমান মেলেনি।

সুশান্তের ফ্লাট থেকে সুশান্তের দেহ ছাড়াও তার একটি ল্যাপটপ, কিছু হার্ডডিস্ক ও দুটি ফোন উদ্ধার করা হয়েছিল। যা তদন্তের জন্য ফরেনসিকে পাঠানো হয়েছিল। সেই ফরেনসিক তথ্য থেকে তারা  জানিয়েছেন খুন হননি অভিনেতা সুশান্ত, আত্মহত্যাই করেছিলেন। গোটা তদন্তের এই  রিপোর্ট টি CBI কর্তাদের হাতে তুলে দিয়েছে AIIMS। এবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে CBI,তবে এর আগে কুপার হাসপাতাল  ও  একইরকম দাবি করেছিল। অর্থাৎ কুপার হাসপাতাল ও AIIMS উভয়েরই দাবি খুন না আত্মহত্যাই করেছিলেন অভিনেতা সুশান্ত।

এই তথ্য সামনে আসার পর টুইটারে ফের সরব হয়েছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। তিনি টুইটে লিখেছেন “তরুণ ও অসাধারন ব্যক্তিরা কখনোই হটাৎ করে একদিন ঘুম থেকে উঠে নিজেদের শেষ করে ফেলেন না। সুশান্ত নিজেই জীবনে ভয়  পাবার কথা বলেছিল। বলেছিল সিনেমা মাফিয়ারা ওকে অপমান করেছে,ব্যান রয়েছে। যেকারণে সে মানসিক অবসাদে ছিল, মিথ্যে ধর্ষণের অভিযোগ আনার ভয় দেখানো হয়েছিল তাকে। ”

এর পোস্টের সাথেই কঙ্গনা আরো কিছু প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে তার উত্তর জানতে চেয়েছেন।

প্রথমত,সুশান্ত বারবার বড়বড় প্রোডাকশন হাউসের কথা বলেছেন যারা তাকে ব্যান করেছিল।এরা কারা?

দ্বিতীয়ত, কেন মিডিয়া সুশান্তের বিরুদ্ধে মিথ্যা ধর্ষণের  অভিযোগ  প্রচার করে যাচ্ছে?

তৃতীয়ত, কেন মহেশ ভাট সুশান্তের অবসাদের কথা বলেছেন?

কঙ্গনার এই প্রশ্নে আবারো উত্তাল হল বলিউড ঠিক যেমন সুশান্ত মৃত্যুর পর কঙ্গনার প্রকাশিত ভিডিওতে হয়েছিল। এই টুইটের পর সাধারণ ভাবেই প্রশ্ন উঠছে , কেন CBI এখনো এ বিষয়ে কোনো সঠিক তথ্য প্রকাশ করছে না?তবে কি মিথ্যাচার হচ্ছে?


Like it? Share with your friends!

631
631 points