গানবিনোদনভাইরালভিডিও

ভুবন বাবুর দিন শেষ! ‘কাঁচা বাদাম’কে টক্কর দিতে এক বিক্রেতা গান ধরলেন ‘কাঁচা পেয়ারা’, ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন অথচ ‘কাঁচা বাদাম’ গান শোনেননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া একপ্রকার অসম্ভব। ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই নেটপাড়ায় ট্রেন্ডিংয়ে রয়েছে এই গান। ফেসবুক ইউটিউব থেকে সর্বত্রই বাজছে কাঁচা বাদাম গান। ইতিমধ্যেই এই গানের একাধিক রিমেক তৈরি হয়ে গিয়েছে। এতদিনে প্রায় সকলেই জেনে গিয়েছেন এই গান তৈরির পিছনের আসল ঘটনা।

আমরা যারা ট্রেনে বাসে বা রাস্তাঘাটে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করি, তারা জানি যে কতরকমের হকার নিজেদের জিনিস বিক্রির জন্য নানান পন্থা ব্যবহার করেন। কেউ গান গেয়ে, কেউ সুর করে পদ্য বলে, কেউ বা হেঁকে হেঁকে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন জিনিস বিক্রির তাগিদে৷ বাদাম বিক্রেতা ভুবন বাবুও সেই কারণেই গান বেঁধেছিলেন, আর হঠাৎই সোশ্যাল মিডিয়ায় তা ভাইরাল হয়ে পড়ায় রাতারাতি ভাগ্য বদলে যায় তাঁর।

আর এখন তিনি এক্কেবারে সেলিব্রিটি তার গাওয়া গান দেশের গন্ডি পেরিয়ে এখন রীতিমতো দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বিদেশেও। পাশাপাশি বীরভূম থেকে শুরু করে সারা বাংলায় তথা দেশে নানান সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তিনি। তবে অনেকের মতে এই জনপ্রিয়তা বেশি দিন টেকার নয়। খুব শিগগিরই তার রানু মন্ডলের মত হাল হবে এই আশঙ্কাও করেছেন নেটিজেনদের একাংশ।

তবে এক শ্রেণির খেটে খাওয়া, নিম্নবিত্ত মানুষের কাছে ভুবন বাবুর সাফল্য উদাহরণস্বরূপ। এবার তার পথ অনুসরণ করেই গান বাঁধলেন এক পেয়ারা বিক্রেতা৷ নিজের ভ্যানে করে পেয়ারা বিক্রি করার সময় তিনি গান গেয়ে বর্ণনা দিয়েছেন তার পেয়ারা গুলি কতটা টাটকা, সতেজ। বলাই বাহুল্য এই গান ও নিমেষে ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, তবে বাদাম গানটির জনপ্রিয়তা এত বাড়াবাড়ি পর্যায়ে যাওয়ায় নেটিজেনদের একাংশের দাবি এটা নিয়ে যেন আর অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি না করা হয়।

Related Articles

Back to top button