রেসিপি

রোববারের মেনুতে থাকে হাটকে খাবার! রইল বাড়িতেই কাঁকড়ার ঝাল তৈরির রেসিপি

বাঙালি আর খেতে ভালোবাসে না এমন মানুষ খুব কমই পাওয়া যায়। তবে নানা ধরণের রান্না তৈরী আর সেগুলো খেতে সর্বদাই রেডি থাকে বাঙালিরা। বিশেষত প্রতিদিনের এক ঘেয়ে খাবার ছেড়ে মাঝে মধ্যে একটু আধটু স্পেশাল খাবার খেতে ইচ্ছা হতেই পারে। এই যেমন সপ্তাহের শেষে যদি মাছ মাংস ছেড়ে বাড়িতেই কাঁকড়ার ঝাল (Kakrar Jhal) হয় দুপুরের মেনুতে তাহলে একেবারে জমে যাবে দুপুরের খাওয়া।

এমনিতে নানা ধরণের মাছ আর রবিবার একটু মাংস বা মটন খেতে ভালোবাসেন অনেকেই। তবে জিভে নতুনত্বের স্বাদ দিতে কাঁকড়া (Crab) কিন্তু দারুন উপায় হতে পারে। আর আজ আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি কাঁকড়ার ঝাল রেসিপি (Kakrar Jhal Recipe)। তাই রেসিপি দেখুন আর বাজার থেকে কাঁকড়া কিনে রান্না করে জমিয়ে তুলুন রবিবারের দুপুরের খাওয়া।

কাঁকড়ার ঝাল তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণঃ 

  • একটু বড় মাপের কাঁকড়া
  • রসুন কুচি, আদাবাটা, লঙ্কাবাটা
  • পেঁয়াজকলি কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি
  • কাঁচালঙ্কা কুচি,
  • সর্ষের তেল, সোয়াসস
  • পরিমাণ মত নুন

কাঁকড়ার ঝাল তৈরির পদ্ধতিঃ 

  • প্রথমে বাজার থেকে কাঁকড়া কিনে আনতে হবে। এখন কেনার সময়েই কাঁকড়ার দাঁড়া ভেঙে পরিষ্কার করে দেয়। যদি না দেয় তাহলে সেগুলোকে এনে পরিষ্কার যে জলে ধুয়ে দাঁড়া ভেঙে ভেতরের নোংরা অংশগুলো বের করে নিতে হবে। তারপর কাঁকড়া দুটুকরো বা চার টুকরো করে নিতে হবে।

  • এবার একটা কড়ায় তেল গরম করে প্রথমে কাঁকড়ার দাঁড়া গুলো ভেজে নিয়ে আলাদা করে রাখুন।
  • তারপর কাঁকড়াগুলো কড়ায় দিয়ে ভালো করে নেড়ে চেড়ে ভেজে নিতে হবে। কাঁকড়া বাজার সময় সাদা হয়ে গেলেই সেগুলোকে নামিয়ে নিতে হবে।

  • এবার কড়ায় নতুন করে আবার খানিকটা তেল দিয়ে তাতে রসুন কুচি, আদাবাটা, লঙ্কাবাটা দিয়ে কষে নিন।
  • কষা হয়ে গেলে মশলার মধ্যেই ভেজে রাখা কাঁকড়াগুলিকে দিয়ে সোয়াসস ও নুন দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে দিতে হবে। আর সামান্য জল দিয়ে সেদ্ধ হতে দিতে হবে।

  • কাঁকড়া সেদ্ধ হয়ে গেলে কাঁচালঙ্কা কুচি, পেঁয়াজকলি ও ক্যাপসিকাম কুচি কড়ায় দিয়ে পরিমাণ মত জল দিয়ে রান্না করতে হবে।

  • মিনিট ১৫ মাঝারি আঁচে রান্না হলেই রেডি  কাঁকড়ার ঝাল। শুধু দুপুরের পাতে গরম গরম ভাতের সাথে খাবার অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button